৫৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজা-ভোট একসঙ্গে

রিডার::ঢাকা

বৃহস্পতিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২০ ০৮:৩৯:৪১ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  

সরস্বতী পূজা এবং ভোট নিয়ে যাতে কোন ধরণের সাংঘর্ষিক পরিস্থিতি তৈরি না হয়-সেটি বিবেচনায় নিয়ে ভোটকেন্দ্র প্রস্তুত করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সরস্বতী পূজা নির্বিঘ্নে উদযাপনের বিষয়টি সামনে রেখে ভোটকক্ষ সাজানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইসি।

দুই সিটির ৫৩টি প্রতিষ্ঠানে একসঙ্গে পূজা এবং ভোট হবে। এর মধ্যে ঢাকা উত্তর সিটির ২৭টি ও দক্ষিণ সিটির ২৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভোটকেন্দ্রে পূজা উদযাপিত হবে বলে কমিশন চিহ্নিত করেছে। ওইসব প্রতিষ্ঠানে পূজা উদযাপনের নির্ধারিত স্থান বা কক্ষে ভোটকক্ষ বানাবে না ইসি।

আজ বৃহস্পতিবার বিকালে নির্বাচন ভবনে এক অনানুষ্ঠানিক কমিশন সভায় ঢাকার দুই রিটার্নিং কর্মকর্তাকে এমনই নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উত্তর সিটির রিটার্নিং অফিসার আবুল কাশেম ইত্তেফাককে বলেন, তালিকাভুক্ত বেশিরভাগ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে মাঠে বা অভিভাবক কর্ণার অথবা মিলনায়তনে পূজা হবে। হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন যাতে নির্বিঘ্নে পূজা করতে পারে-সেই ব্যবস্থা থাকবে।

বৈঠক শেষে সকল কেন্দ্রে পূজা হবে, হিন্দু পুজার্থীদের এমন দাবি করলেও নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর তা নাকোচ করে বলেছেন, কতগুলো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পূজা হয়, তার একটি খসড়া তালিকা পাওয়া গেছে। একটা পরিসংখ্যান আমরা নিয়েছি।

উত্তর সিটিতে ১৩১৮টি (ভোটকেন্দ্র) প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজা হয়। ১১৫০টি কেন্দ্রের মধ্যে দক্ষিণে ২৬টি প্রতিষ্ঠানে পূজা হয়।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী উত্তরে ২ দশমিক ০৫ শতাংশ এবং দক্ষিণে ২ দশমিক ২৬ শতাংশ কেন্দ্রে পূজা হবে। আর দুই সিটিতে ২ হাজার ৪৬৮ কেন্দ্রের মধ্যে পূজা হবে ৫৩ টি কেন্দ্রে। অর্থাৎ ২ দশমিক ১৫ ভোটকেন্দ্রে পূজা হবে। তিনি বলেন, স্কুল বা কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা বলেছেন, এটা নিয়ে সমস্যা নেই।

পূজা আর ভোট একসঙ্গে সমস্যা হবে না-উল্লেখ করে সচিব বলেন, এটাও তথ্য নেয়া হয়েছে পূজা তারা কোথায় করে। যেমন অগ্রণী বালিকা বিদ্যালয়ে কথা বলা হয়েছে-এটা তারা করে তাদের অডিটরিয়ামে। এটা বেশ বড় স্কুল, তাই সব রুম নির্বাচনের জন্যও লাগবে না।

পূজার জন্য তো লাগবেই না। অতএব, পূজা যেদিকে হবে, তার থেকে দুরত্ব থেকে ভোটগ্রহণ করা হবে। যেন নির্বাচনের জন্য পূজার সমস্যা না হয়। পূজার জন্য নির্বাচনের সমস্যা না হয়। ইসির সচিব বলছেন, পূজা কিন্তু ২৯ জানুয়ারি। হিন্দু সম্প্রদায়ের অনেকের সঙ্গেই আমাদের কথা হয়েছে।

তারা বলেছেন পূজা ২৯ তারিখেই শেষ। তাদের মধ্যে কেউ কেউ মনে করেন, পূজা ৩০ পর্যন্ত একটা সময় আছে। সকাল ১১টা পর্যন্ত লগ্ন আছে।

আন্দোলনকারীদের ভুল বোঝানো হচ্ছে : ইসির সিনিয়র সচিব মনে করেন, ছাত্ররা আন্দোলন কেন করছেন, কারা এটিকে সংগঠিত করছেন, সেটার তথ্য নেই। হয়তো কেউ পেছন থেকে ভুল বোঝাচ্ছেন, পূজার দিনে ভোট হচ্ছে।

আদালত যে আদেশ দিয়েছেন বোঝে শুনেই দিয়েছেন এবং নির্বাচন কমিশনও বোঝে শুনেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে নিশ্চয়ই তাদের বুঝানো হচ্ছে না। শিক্ষার্থীরা ভুল বুঝতেই পারেন। তাদের তো বয়স কম। দ্রুত তাদের এই ভুলটা কেটে যাবে। তারা বিষয়টি বুঝতে পারবেন। আন্দোলনরত ছাত্রদের অনুরোধ করবো, তারা যেন কোনো বিভ্রান্তির কবলে পড়ে, কোনো রকম বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না করে, যেন লেখাপড়ায় মনযোগ দেয়।

ভোট না পেছানোর পক্ষে ইসির যুক্তি : ভোট পেছাতে সমস্যা কোথায়-এমন প্রশ্নের জবাবে ইসির সচিব বলেন, ১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষা, মার্চ স্বাধীনতার মাস, এরপর বঙ্গবন্ধুর জš§শতবার্ষিকী উদযাপনের নানা প্রোগ্রাম অছে। আবার এপ্রিলে শুরু হচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা।

মে মাসে নির্বাচনের যে তারিখ আছে, তা কোনোভাবেই করা সম্ভব না। শিডিউল এমনভাবে দিতে হবে যে, প্রতীক পাওয়ার পর প্রার্থীদের অবশ্যই কমপক্ষে ১৫ দিন সময় দিতে হবে প্রচারের জন্য। এক্ষেত্রে একদিন কম দিয়ে ১৪ দিন সময় দিলে প্রার্থীরা আবার আদালতে যেতে পারবেন।

আদালতও আইনের পক্ষে রায় দেবেন। তাই সবকিছু বিবেচনায় নিয়েই কমিশন অত্যন্ত যুক্তিসঙ্গতভাবে ৩০ জানুয়ারি ভোটের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কমিশন বলছে, সরকারি ক্যালেন্ডারে ২৯ তারিখ পূজার কথা বলা আছে। ক্যালেন্ডার হয়েছে অক্টোবরে। নভেম্বরে এটি গেজেট আকারে প্রকাশ হয়েছে।

সমস্ত সরকারি প্রতিষ্ঠানে এই ক্যালেন্ডার রয়েছে। তখন কেন তারা সরকারের কাছে বলেননি পূজা ২৯ নয় ৩০ তারিখে। সরকার যদি মনে করতো পূজা ৩০ তারিখে, তাহলে সেদিন পূজার তারিখ ঘোষণা হতো। ২৯ তারিখেই ভোটের তারিখ শিডিউল দিতে পারবো। তখন কোনো সমস্যা ছিল না। সরকারিভাবে ২৯ তারিখ পূজার তারিখ দেওয়ায় সেদিন ভোটগ্রহণের সুযোগ ছিল না নির্বাচন কমিশনের।

ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগী বলেন, ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের দিন কেবল মাত্র ভোট দেয়ার জন্য প্রাইভেট কার ব্যবহার করা যাবে। প্রাইভেট কারের উপর নিষেধাজ্ঞা শিথিল করার বিষয়ে তিনি বলেন, এক এলাকায় বসবাস করে কিন্তু ভোটার অন্য এলাকার। তারা তাদের প্রাইভেট কার নিয়ে ভোট দিতে পারবেন।

যদি পুলিশ ধরে, বাসার ঠিকনা আর ভোটার আইডি কার্ড দেখিয়ে বলতে হবে যে ভোট দিতে আসছি, তাহলেই চলাচল করতে পারবে।

আদালতের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ভোট :নির্বাচন পেছানোর রিট আবেদন খারিজের পর আপিল আবেদন হওয়ার বিষয়ে ইসি সচিব বলেন, আমাদের সবসময় আদালতের প্রতি শ্রদ্ধা রয়েছে। যেকোনো আইনের ব্যাখ্যা বা প্রশাসনিক কোনো কাজে সিদ্ধান্ত নেয়ার পর আদালত সেটাকে পরিবর্তন করে দিতে পারেন।

সে ক্ষমতা আদালতের আছে। সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ সর্বোচ্চ আদালত। সেখান থেকে যদি অন্য কোনো সিদ্ধান্ত আসে, সেটা অবশ্যই কমিশনের মেনে নিতে হবে। আমরা আশা করবো হাইকোর্ট যেসব যুক্তিতর্কের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত দিয়ে ছিলেন, সুপ্রিম কোর্টেও যারা শুনানি দেবেন, তারা নিশ্চয় সে যুক্তি শুনবেন।

এরপরও তারা যে সিদ্ধান্ত দেবেন, সেটাই কমিশনকে সবসময় মেনে নিতে হবে।

মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী ইশরাক হোসেনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলা তার নির্বাচনের পথে বাধা নয় বলে জানিয়েছেন ইসি।

এ বিষয়ে ইসি সচিব বলেন, আমাদের পক্ষ থেকে নির্দেশনা ছিল, কোনো প্রার্থী বা তার পক্ষে নির্বাচন কাজ পরিচালনাকারী বা সমর্থকদের যেন গ্রেফতার বা হয়রানি করা না হয়। কিন্তু ইশরাক হোসেনের বিরুদ্ধে যে মামলা সেটা পুরনো মামলা। এটা একটা দুর্নীতির মামলা। বিষয়টি এমন না যে এখনই তাকে গ্রেফতার করতে হবে।

মামলার বিষয়ে আদালতে শুনানি হয়েছে, এটা আমাদের বা পুলিশের পক্ষ থেকে না। এটা আদালতে শুনানি হয়েছে, আগামি ফেব্রুয়ারি মাসে একটি তারিখ ঠিক হয়েছে তখন শুনানি দেবেন তারা। এর ফলে ইশরাক হোসেনের নির্বাচনের প্রচারণায় কোনো বাধা নেই। তাকে (ইশরাক হোসেন) গ্রেফতার করা হচ্ছে না। এমনকি কোনো বাধারও সৃষ্টি করা হচ্ছে না। এটা প্রক্রিয়াগতভাবে হবে। তিনি নির্বাচন করবেন, প্রচারণাও করবেন। এটার কারণে তো নির্বাচন প্রক্রিয়ার কোনো বাধা নেই।

আচরণ বিধি লংঘনে ইসি কী পদক্ষেপ নিচ্ছে জানতে চাইলে ইসি সচিব বলেন, আচরণ বিধিমালা লংঘন করে প্রচার করলে রিটার্রিং কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটরা দেখবেন। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি পদক্ষেপ তারা নিয়েছেন। শাস্তিও দিয়েছেন। যারা আচরণ বিধি লঙ্ঘন করছেন, তাদের জরিমানা করা হয়েছে। তারপর সতর্ক করা হয়েছে।

ভবিষ্যতে বিধি ভঙ্গ করলে আরও কঠোর শাস্তি দেয়া হবে। অবৈধ অস্ত্র যাদের কাছে, তাদের ধরতে জোরদার পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ঢাকা শহর থেকে বহিরাগতদের বের করার কোনো সুযোগ নেই। কারণ ঢাকা শহরে সারাদেশ থেকে লোকজন আসে। তারপর দিনমজুর, তারা ঢাকা বাইরে আসেন। তাদের বের করা সম্ভব না।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন-ইভিএম প্রস্তুতির বিষয়ে ইসি সচিব বলেন, প্রস্তুতি সন্তোষজনক। কোনো চ্যালেঞ্জ নাই। তবে প্রার্থীরা যত সক্রিয় থাকবেন নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি তত বাড়বে। অনেকেই ভোট নয়, পরিচিতি বাড়ানোর জন্য প্রার্থী হয়। কেউ সরে গেলে কী করার আছে।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ঢাকার দুই সিটি ভোট মাঠে এবার সেনা নামাবে না ইসি

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে সশস্ত্রবাহিনীকে মাঠে নামাবে না নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গতকাল মঙ্গলবার নির্বাচন ভবনে কমিশন বৈঠক শেষে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব মো. আলমগীর এ কথা জানান। তিনি বলেন, ঢাকার ভোটের সেনা নামানোর কোনো পরিকল্পনা নেই। ইসি সচিব... আরও পড়ুন

নির্বাচন কমিশন (ইসি)

ভোটের দিন শিল্প-কারখানা বন্ধ রাখার নির্দেশ

আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনের দিন ১ ফেব্রুয়ারি নির্বাচনি এলাকার শিল্প কারখানা বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ইসির উপসচিব (নির্বাচন পরিচালনা-২) আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত চিঠিতে এ নির্দেশনা দেয়া হয়। চিঠিটি শিল্প, বাণিজ্য... আরও পড়ুন

ভোটার তালিকার হালনাগাদ শুরু

  দেশজুড়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদের তথ্য সংগ্রহ শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার হালনাগাদের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। আগামী ১৩ মে পর্যন্ত বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহের কাজ চলবে। এ সময়... আরও পড়ুন

উপজেলায় ইভিএম

শেষ তিনধাপে জেলা সদরের উপজেলায় ইভিএমে ভোটও

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তৃতীয় থেকে পঞ্চম ধাপে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।উপজেলায় ইভিএম ব্যবহারের আইন থাকলেও এ সংক্রান্ত বিধিমালা না থাকায় প্রথম দুই ধাপের উপজেলায় ইভিএম ব্যবহার হচ্ছে না। তবে শেষ তিনধাপের জেলা সদরের... আরও পড়ুন