২৫ গ্রাম মাদকের বহনের সাজা মৃত্যুদণ্ড

রিডার:: ঢাকা

রবিবার, ২৮ অক্টোবর, ২০১৮ ১২:১৭:০৩ পূর্বাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
কোকেন, ইয়াবা,

কোকেন, ইয়াবা, হেরোইন ও পেথিড্রিন জাতীয় মাদকের ব্যবহার, পরিবহন, চাষাবাদ, উৎপাদন, আমদানি-রপ্তানি বা বাজারজাত করার সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদণ্ড অথবা মৃত্যুদণ্ড। মাদকের পরিমাণ ২৫ গ্রাম বা তার বেশি হলেই এই সাজা দেওয়া যাবে।

আজ শনিবার এই বিধান সংযোজন করে সংসদে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ বিল ২০১৮ পাস হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বিলটি পাসের জন্য উত্থাপন করেন।

আইনটির পাসের প্রতিবাদে জনমত যাচাইয়ের প্রস্তাব করে জাতীয় পার্টির সদস্য শামীম হায়দার পাটোয়ারি বলেন, ‘এটি নিষ্ঠুর আইন। ২৫ গ্রাম পরিমাণের মাদক পেলেই সাজা হবে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড অথবা মৃত্যুদণ্ড। অনেক বাহক নিজেও জানে না সে হেরোইন বহন করছে। এর সঙ্গে পুলিশও জড়িত।

তিনি বলেন,‘শাস্তি ‘মৃত্যুদণ্ড’ বা ‘যাবজ্জীবন’ এর আগে সর্বোচ্চ বলে কোনো শব্দ নেই। যে কারণে বিচারকের পক্ষে মৃত্যুদণ্ড অথবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া ছাড়া অন্য কোনো শাস্তি দেওয়ার সুযোগ থাকবে না। বেশ কয়েকটি ধারায় এই শাস্তির কথা বলা আছে। সুতরাং আইনটি পাসের আগে জনমত যাচাই করা দরকার।’

জবাবে মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘১৯৯০ সালের আইনে বলা আছে, ৫০ গ্রাম মাদক পাওয়া গেলে তার শাস্তি হবে মৃত্যুদণ্ড।

‘১৯৯০ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৫৯৬ জনকে বিভিন্ন অপরাধে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কারোরই মাদক আইনে মৃত্যুদণ্ড হয়নি। তাই এবারের আইনে ইয়াবার ব্যবহারের বিষয় এবং মাদকে অর্থলগ্নিকারীদের শাস্তির আওতায় আনা হয়েছে।’

প্রস্তাবিত আইনের ৯নং ধারায় বলাহয়, অ্যালকোহল ব্যতীত অন্যান্য মাদকদ্রব্যের উৎপাদন বা প্রক্রিয়াজাতকরণে ব্যবহার হয় এমন কোনো দ্রব্য বা উদ্ভিদের চাষাবাদ, উৎপাদন, বহন, পরিবহন বা আমদানি-রপ্তানি, সরবরাহ, বিপণন, গুদামজাত, সেবন বা ব্যবহার, অর্থ বিনিয়োগ বা পৃষ্ঠপোষকতা করা যাবে না।

বিলের ৩৬নং ধারায় বলা আছে, কোনো ব্যক্তি আইনের এই বিধান লঙ্ঘন করলে তিনি সর্বোচ্চ মৃত্যুদণ্ডে বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের বাঙ্গলার বীরকন্যা প্রীতিলতা ওয়েদ্দাদার চরিত্রে রুপালি পর্দায় দেখা দেবেন পরীমনি। ছবিটির প্রডাকশন শুরু... আরও পড়ুন

প্রীতিলতা ওয়েদ্দাদার

ইকামা বা ভিসা আছে কিন্তু ছুটিতে দেশে এসেছেন, তাদের সবাই সৌদি আরব যেতে পারবেন বলে... আরও পড়ুন

ইকামা বা ভিসা আছে

দক্ষিণ কোরিয়ার এক কর্মকর্তাকে গুলি করে খুন করে সেই মৃতদেহ পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন... আরও পড়ুন

ব্যক্তির মৃতদেহ জ্বালিয়ে

করোনা ভাইরাসের মতো বৈশ্বয়িক মহামারীর সময়ও জনগণের পাশে না থেকে বিএনপি ও জামায়াত চোরাগলি দিয়ে... আরও পড়ুন

ষড়যন্ত্রের অলিগলি খুঁজে

সপ্তাহ পেরুতেই ভোজ্য তেল, চাল ও চিনির বাজারে দাম বেড়েছে।পামওয়েল ও খোলা সোয়াবিন তেলের দাম... আরও পড়ুন

তেল, চাল ও চিনির বাজারে দাম বেড়েছে

আজ শুক্রবার রাজধানীর কয়েকটি এলাকায় তিন ঘন্টার জন্য গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। জরুরি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য... আরও পড়ুন

জরুরি রক্ষণাবেক্ষণের

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু নিয়ে উদ্ভট একটি খবর পাওয়া গেছে।তিনি নাকি যখনই যুক্তরাষ্ট্রে সফরে করেন,... আরও পড়ুন

  স্যুটকেস ভর্তি ময়লা

বিশ্বের নামকরা টেক জায়েন্টদের সঙ্গে সম্পর্কটা দারুণ মাইক্রোসফট সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের।অ্যাপলের স্টিভ জবস থেকে টেসলা... আরও পড়ুন

আর্ন্তজাতিক সমালোচনা ও চাপের মুখেই চীনে উইঘুর মুসলিমদের নিপীড়নে শিনজিয়াংয়ে বন্দীশিবিরের খোঁজ পাওয়া গেছে। উইঘুরদের... আরও পড়ুন

শিনজিয়াংয়ে বন্দীশিবিরের খোঁজ

এখন থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো গ্রাহকদের কাছ থেকে ক্রেডিট কার্ড বাবদ কুড়ি শতাংশের বেশি সুদ আদায়... আরও পড়ুন

ক্রেডিট কার্ড বাবদ কুড়ি শতাংশের

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

ইয়াবা নিয়ে প্রদীপের সাক্ষাৎকারই কাল হলো মেজর সিনহার!

‘জাস্ট গো’ ইউটিউব চ্যানেল খুলেছিলেন সেনাবাহিনীর সাবেক মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। উপকূলীয় এলাকার ইয়াবার আদ্যোপান্ত তুলে ধরার চেষ্টা ছিলো তাঁর। ঈদের বেশ কয়েক দিন আগে থেকেই কক্সবাজার এলাকায় ইয়াবা বাণিজ্যের নেপথ্য কাহিনি নিয়ে ডকুমেন্টারি তৈরি করছিলেন মেজর সিনহা। পুরো... আরও পড়ুন

ইসলাম ওরফে সিফাতকে

সিনহা হত্যা মামলা: জামিন পেলেন সিফাত

কক্সবাজারে সেনাবাহিনীর সাবেক মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানকে গুলি করার সময় তার সঙ্গে থাকা সাহেদুল ইসলাম ওরফে সিফাতকে ও গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। আজ সোমবার কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এই শিক্ষার্থীর  জামিন হয়েছে।  বেলা ১১টার দিকে টেকনাফ সিনিয়র... আরও পড়ুন

পুলিশের চাকরি

পুলিশের পোশাকে ইয়াবা চালান

পুলিশের চাকরি হারানোর পর নিয়মিত কক্সবাজার থেকে পুলিশের পোশাক পড়ে মাদকের চালান নিয়ে নিয়মিত ঢাকায় আসতেন মাহফুজুর রহমান। ২০১৩ সালে চাকরিচ্যুত হওয়ার পর মাসে দুই থেকে তিনবার করে ইয়াবার বড় চালান নিয়ে গন্তব্যে পৌঁছে দিতেন মাহফুজুর।সর্বশেষ গতকাল মঙ্গলাবার রাতে ১০... আরও পড়ুন

লাশের পেটেও ইয়াবা

পেটের ভেতর ১১ প্যাকেট ইয়াবা গলে নেত্রকোনার এক মাদক অপরাধীর মৃত্যু হয়েছে। আজ শনিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে জুলহাস (৩৫) নামের ওই যুবকের লাশের ময়নাতদন্তের সময় তার পেটে প্যাকেটভর্তি ইয়াবা পেয়েছেন চিকিৎসকরা। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান... আরও পড়ুন