সড়ক পরিবহন আইন আগামী মন্ত্রীপরিষদ সভাতেই অনুমোদন পাচ্ছে::কাদের

শুক্রবার, ৩ আগস্ট, ২০১৮ ০২:৪৬:৩১ পূর্বাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  

রিডার::ঢাকা

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়ার বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দাবিনামা মেনে নেওয়ার পথে অনেক দূর এগিয়ে গেছি। অনেকগুলো দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে। যেটা বাকি আছে, সেটা সড়ক পরিবহন আইন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আগামী মন্ত্রিপরিষদ বৈঠকে সে আইনটি অনুমোদন হওয়ার পর সংসদে যাবে। আশা করা হচ্ছে, এ আইনটি পাস হবে।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘নৌমন্ত্রী তাঁর বক্তব্য নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। বারবার ক্ষমাও চেয়েছেন।  অ্যাপোলোজাইজড (দুঃখ প্রকাশ) করেছেন। একজন মন্ত্রী যখন ক্ষমা প্রার্থনা করছেন, তাঁকে কি মাফ করা যায় না?’

রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে আজ বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা সাবওয়ের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এ আহবান জানান।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সবাইকে সবিনয় অনুরোধ করব, অভিভাবকদের অনুরোধ করব—সবার সহযোগিতা চাইছি। দাবিগুলো মেনে নিয়েছি, পূরণ করার ব্যাপারে। আজকে রাস্তার যানবাহন পুড়িয়ে ফেলবে বা ভাঙচুর করবে—এ ভয়ে গাড়ি বের হচ্ছে না। যাত্রীদের কষ্ট হচ্ছে। এগুলো বিবেচনা করবেন।’

বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীদের জামায়াত-শিবির উসকে দিচ্ছে কি না, সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, যৌক্তিক দাবিতে যদি রাজনীতির কূটকৌশল জড়িয়ে পড়ে, তাহলে আন্দোলন ভিন্ন খাতে প্রবাহিত হওয়ার আশঙ্কা আছে।

তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ রকম রাজনীতির অনুপ্রবেশ ঘটছে কি না, কেউ তাদের অতীত আন্দোলনে ব্যর্থতার কারণে কখনো কোটার ওপর, কখনো শিক্ষার্থীদের ওপর সওয়ার হচ্ছে কি না—তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের দাবিনামা যৌক্তিক। দাবিনামা মেনে নেওয়ার পর যদি আন্দোলন হয়, সেটা কিন্তু অযৌক্তিক হবে।’

সড়ক দুর্ঘটনার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, অপরাধীদের দ্রুততার সঙ্গে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ফিটনেসবিহীন গাড়ির বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। বাকিগুলো সড়ক পরিবহন আইনের মধ্য আছে। সংসদে পাস হলে প্রয়োগ করা যাবে। যাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তাঁদের বিচারও সময়ের ব্যাপার। বিষয়টি কোমলমতিরা উপলব্ধি করবে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের অনেকগুলো দাবি মেনে নেওয়া হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও এ বিষয়ে বলেছেন। শিক্ষার্থীদের কাছে আহ্বান জানাব, যারা আগামী দিনের নেতৃত্ব দেবে, তারা তাদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফিরে গিয়ে পড়াশোনায় মনোযোগ দেবে। সবকিছু দ্রুততার সঙ্গে সম্পন্ন হবে এবং যৌক্তিক সমাধানে যাওয়া হচ্ছে।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।