লাদেন ও আল-কায়েদায় তার সাংগঠনিক সন্ত্রাসবাদ

রিডার::পাকিস্তান

শুক্রবার, ১৭ জুলাই, ২০২০ ১১:৩০:২১ পূর্বাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
হামলার নীল নকশা তার

ওসামা বিন লাদেনকে বৈশ্বিয়িক সন্ত্রাসবাদের প্রণেতাকে বলা হলেও যেন একটু কম বলা হয়ে যায়।যুক্তরাষ্ট্রে ৯/১১ হামলার নীল নকশা তার উর্বর মস্তিষ্কের ফসল।

সেই লাদেনকে নিয়ে সম্প্রতি দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস একটি বিশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওসামা বিন লাদেনের সিরীয় মা হলেন তাঁর ধনকুবের ইয়েমেনি পিতার বহু স্ত্রীর মধ্যে একজন। তাঁর ভাইয়েরা যখন উচ্চশিক্ষার জন্য পাশ্চাত্যে যাওয়া শুরু করলেন, তখন ওসামা জেদ্দার আবদেল আজিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়াটাকেই গুরুত্ব দিলেন।

যেখানে ওসামার ওহাবি পন্থা নিয়ে পড়াশোনার প্রতি আগ্রহ তৈরি হয়। দু’জন ক্যারিশম্যাটিক শিক্ষক, মুহাম্মদ কুতুব ও আবদুল্লাহ আজম দ্বারা তিনি ব্যাপকভাবে উৎসাহিত হন। মুহাম্মদ কুতুব হলেন মিসরের ইখওয়ানের (ইখওয়ান ছিল একটি ওয়াহাবি মিলিশিয়া দল) বিখ্যাত নেতা সৈয়দ কুতুবের ভাই। আর আবদুল্লাহ আজম হলেন একজন ফিলিস্তিনি। তিনি জাহিলিয়াত যুগের কুতুব মতবাদকে একীভূত করেছিলেন।

সেই অর্থে তিনিই পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে আধুনিক জিহাদের পথকে গড়ে তোলেন।

ওসামা ১৯৮০ সালের দিকে পাকিস্তানের পেশোয়ার শহরে আসেন সোভিয়েত ইউনিয়নের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে। ১৯৮৪ সালের মধ্যে ওসামা পেশোয়ারে লম্বা সময় পার করেছেন। যেখানে তিনি শহরের বেশ কয়েকটি গেস্ট হাউস ভাড়া নিয়েছিলেন বলে জানা গেছে।

এসময়টায় ওসামা আল-জিহাদ পত্রিকা অফিসে যাওয়া শুরু করেন। আল-জিহাদ পত্রিকা মূলত আরবি ভাষায় পেশোয়ার থেকে প্রকাশিত হতো। পত্রিকাটির পরামর্শদাতা ছিলেন আজম (পরবর্তী সময়ে আজম পাকিস্তানের ইসলামাবাদে একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। বলা হয়ে থাকে বিশ্ববিদ্যালয়টি ছাত্রদের মধ্যে চরমপন্থাই ছড়িয়েছে।)

১৯৮৯ সালে জালালাবাদে মুজাহিদিনরা পরাজিত হন। তখন সোভিয়েতদের বিরুদ্ধে ওসামার যুদ্ধ কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়ে।

নব্বুইয়ের প্রথম দিকে ওসামার মনে হলে, তাঁর আসল ‍শত্রু হলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আর তাঁর এই টোপটি ভালোভাবেই গিলে পাকিস্তান।

সিপাহ সাহাবা নামে আফগানিস্তানের প্রশিক্ষণ শিবিরে শুরু হয় বলে (এটি পাকিস্তানের রাজনৈতিক দল, বর্তমানে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত নামে পরিচিত) দাবি করেন বিখ্যাত সাংবাদিক জ্যাসন বুর।

তিনি বলেছেন, বেনজির ভুট্টোকে হত্যা করার জন্য একটি পরিকল্পনা করেন ওই দলটির নেতা, রামজি ইউসুফ। কিন্তু ব্যর্থ হন তিনি। তবে একটা বড় উসকানি তিনিই দেন। আর রামজির কাজের জন্য সব আর্থিক মদদ আসত রামজির আত্মীয় খালিদ শেখ মোহাম্মদের কাছ থেকে।

খালিদ তখন করাচিতে সৌদি ব্যবসায়ীর ছদ্মবেশে বাস করছিলেন। আর ৯/১১ হামলার মূল ছকেও খালিদ ছিলেন।

ওই সময়টায় ভুট্টোর করাচির বাড়ির বাইরে বোমা হামলা চালাতে গিয়ে নিজেই জখম হয়ে পড়েন রামাজি। গুরুতর আহত হওয়ার পর তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আর হাসপাতালে সেই সময় তাঁকে দেখতে আসেন সিপাহ সাহাবার ঊর্ধ্বতন রাজনৈতিক নেতারা। এই হামলার জন্য তখন ভুট্টো সরকার লাদেনকে দায়ী করে।যদিও এরপর আর কিছুই হয়নি।

এদিকে খালিদ শেখ মোহাম্মদ নিউ ইয়র্কে হামলার জন্য পরিকল্পনা করতে থাকেন।

ওসামাকে অর্থায়নের জন্য নতুন পরিকল্পনা দেওয়ার আগে মধ্যপ্রাচ্যের সন্ত্রাসীগোষ্ঠী আফগানিস্তানে চলে আসে। পাহাড়ি দুর্গম এলাকা, অশিক্ষা, দরিদ্রতা সব মিলিয়ে জঙ্গি হামলাকারীদের প্ররোচনা ও পরিকল্পনা চমৎকার ও নিরাপদ দেশ ছিল আফগানিস্তান। তাই তারা দেশটিতে অভিবাসী হিসেবে বা তীর্থযাত্রী হিসেবে ভ্রমণ শুরু করে।

আফগানিস্তানে যাঁরা ছিলেন তাঁদের মধ্যে ছিলেন ইন্দোনেশিয়ান হাম্বলিও। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় মার্কিনদের হত্যা করার ছকে অর্থ ঢালার জন্য প্রায়ই তিনি আয়মান আল-জাওয়াহিরির সঙ্গে দেখা করতেন। তাঁকে প্রায়ই করাচিতে দেখা যেতো।

১৯৯৬ সালের দিকে কানাডা, ফ্রান্স ও জার্মানি থেকে আরব প্রবাসীরাও পাকিস্তান হয়ে আফগানিস্তান যান। তাদের উদ্দেশ্য ছিল লাদেনের কাছে বায়াত গ্রহণ করা। সৌদি তরুণরা, যাদের বেশির ভাগই মূলত ইয়েমেনের বাসিন্দা।

ধীরে ধীরে অন্যদের তুলনায় অনেক বেশি এসেছিলেন আফগানিস্তানে। কারণ যুক্তরাষ্ট্র তাদের অন্য দেশের তুলনায় আরো সহজে ভিসা দিয়েছে।

ওসামার কাজে সহযোগিতা করতেন আরো এক মিসরের নাগরিক। তিনি হলেন আবু জুবায়দা। তিনি শিগগিরই আল-কায়েদার মৌলিক সম্পদ হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। এরপর ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত ওসামা সুদানে গিয়ে কিছুদিন থাকেন। পরে প্রশিক্ষণ দেখভাল করার জন্য তিনি পেশোয়ারে ফিরে আসেন।

সেই সময়টায় বেনজির সরকার তাঁকে গুলি করে জখম অবস্থায় আটক করেওছিল। তখন পাকিস্তানের কেউ-ই জানতেন না যে কোন সন্ত্রাসী তাদের নাগালে এসে ভিড়েছে।

করাচিতে রামজি বিন আল-সিভ নামের আরো একজনকে আটক করা হয়েছিল। তিনি ছিলেন ‘হামবার্গ সেল’ নামের একটি সংগঠনের এক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। আসলে বিষয়গুলো ছিল চিন্তারও বাইরে। ইসলামাবাদের সরকার যদি তাঁর সম্পর্কে গুনাক্ষরেও জানত, তবে ইতিহাসটা হয়তো অন্যরকম হতেও পারতো।

বিশ্ব ইতিহাসকে পাল্টে দিতেই যেন ২০০১ সালের ১ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়র্কে বিশ্ব বাণিজ্যে ও পেন্টাগনে হামলা চালায় আল-কায়েদা। এর দশ বছর বাদে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রশাসনের শেষে দিকে ২০১১ সালের ২ মে পাকিস্তানের অ্যাবটাবাদ শহরে লাদেনকে হত্যা করে মার্কিন সেনারা।

২০০৭ সালের ডিসেম্বরে প্রায় ১৩টি দল তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তান (টিটিপি) গঠনে বায়তুল্লাহ মেহসুদের নেতৃত্বে এক হয়। তেহরিক-ই-তালিবানের বেশ কয়েকটি উদ্দেশ্যের মধ্যে অন্যতম ছিল পাকিস্তান রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা।

টিটিপির মূল লক্ষ্য হলো, পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনী ও রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী অভিযান চালিয়ে দেশটির সরকারকে উৎখাত করা।

সাধারণত টিটিপি আফগানিস্তান-পাকিস্তান সীমান্তের উপজাতি বলয়ের ওপর নির্ভর করে। সেখানে থেকেই তারা লোকবল নিয়োগ দেয়। টিটিপি আল-কায়েদার কাছ থেকে আদর্শিক দিকনির্দেশনা পায়। আর আল-কায়েদার সঙ্গে মধুর সম্পর্কও বজায় রেখে চলে সংগঠনটি।

২০১৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারি বিবিসি এক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এতে বলা হয়, পাকিস্তানের তালেবানগোষ্ঠী সরকারের সঙ্গে শান্তি আলোচনায় অংশ নিতে পাঁচ সদস্যের একটি দল ঘোষণা করেছে। তাদের একজন হচ্ছেন রাজনীতিবিদ ও সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খান।যিনি বর্তমানে দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

চীনে মুসলিম অধ্যুষিত প্রদেশ শিনজিয়াংয়ে হাজার হাজার মসজিদ একেবারে গুঁড়িয়ে বা ক্ষতিগ্রস্থ করে দেওয়া হয়েছে।গতকাল... আরও পড়ুন

হাজার হাজার মসজিদ একেবারে গুঁড়িয়ে

ডোপ টেস্টে পজিটিভ হওয়ায় পুলিশের মাদকাসক্ত ২৬ সদস্যকে চাকরিচ্যুত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন... আরও পড়ুন

২৬ সদস্যকে চাকরিচ্যুত

ধিরুভাই-কোকিলবেন আম্বানি পরিবারের দ্বিতীয় সন্তান মুকেশ আম্বানি। বছরে কয়েক আগেও বিশ্বের ধনকুবের হিসেবেই সবাই তাঁকে... আরও পড়ুন

ক’দিন আগেই বিয়ে হয়েছিল দম্পত্তির। ছুটির দিনে বেড়াতে গিয়েছিলেন সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রাবাস এলাকায়।আর তাতেই... আরও পড়ুন

দুটি কৌশলগত বি-৫২ বোমারু মার্কিন বিমানকে বাল্টিক সাগরের আকাশসীমানায় প্রতিহত করেছে রাশিয়ার একটি যুদ্ধবিমান। বোমারু... আরও পড়ুন

বোমারু বিমান

মাদককান্ডে জেরার মুখোমুখি হতে ভারতের মুম্বাইয়ে নার্কোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরোর (এনসিবি) দফতরে গিয়েছেন অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন।... আরও পড়ুন

অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন।

চীনের মদতেই জম্মু ও কাশ্মীরের জঙ্গিদের হাতে অস্ত্র সরবরাহ করছে পাকিস্তান বলে অভিযোগ এনেছে ভারত। লাদাখ... আরও পড়ুন

কাশ্মীরের জঙ্গিদের হাতে

যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া একে অপরের নির্বাচনে সাইবার হস্তক্ষেপ করবে না এই মর্মে একখানা চুক্তি করে... আরও পড়ুন

সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রবাসে ছাত্রলীগের দখলে থাকা কক্ষ থেকে বেশ কিছু অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ।আজ... আরও পড়ুন

ছাত্রলীগের দখলে থাকা

স্বামীর সঙ্গে সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রবাসে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক নারী।গতকাল শুক্রবার রাতে... আরও পড়ুন

গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Recommended for you

নেতা ওসামা বিন

লাদেনপুত্র হামজা নিহত!

আল কায়েদার নিহত নেতা ওসামা বিন লাদেনের ছেলে হামজা বিন লাদেন মারা গেছেন বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। সিএনএন বলছে, আজ বুধবার নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তা এমন... আরও পড়ুন

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র

লাদেন পুত্রের মাথার দর বাড়ালো যুক্তরাষ্ট্র

যুক্তরাষ্ট্র ওসামা বিন লাদেনের ছেলে হামজা বিন লাদেনকে ধরতে ১০ লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতিতে আশঙ্কার প্রকাশ করা হয়। লাদেন যেমন... আরও পড়ুন

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে

ট্রাম্পের সঙ্গে ইমরানের ‘টুইটার’ লড়াই শুরু

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের এইবার টুইটার মল্লর যুদ্ধ শুরু হয়েছে। সোমবার ট্রাম্প ও ইমরান পরস্পরকে টুইটারে ট্রল করেছেন। একজন আরেকজনকে কথা শুনিয়ে দিতে এতোটুকু কার্পন্য করেননি । উদ্ভূত... আরও পড়ুন

বিমান হামলায় আল-কায়েদার দক্ষিণ এশিয়া প্রধান নিহত

  আফগানিস্তানে এক মার্কিন বিমান হামলায় নিহত হয়েছেন জঙ্গি সংগঠন আল-কায়েদার দক্ষিণ এশিয়া শাখার প্রধান মাওলানা আসেম ওমর। গতকাল মঙ্গলবার আফগানিস্তানের জাতীয় নিরাপত্তা অধিদপ্তর টুইটারে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে বলে জানিয়েছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম। জাতীয় নিরাপত্তা অধিদপ্তর মাইক্রোব্লগিং সাইটে... আরও পড়ুন

ঘটনার ১৮ বছরে বাদে

পশ্চিমাদের উপর আল কায়েদার হামলার হুমকি

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১১।যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক সিটিতে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের ট্রেড সেন্টারের এক সন্ত্রাসী হামলায় পাল্টে গেছিল গোটা বিশ্বের অবস্থান। এ ঘটনার ১৮ বছরে বাদে যুক্তরাষ্ট্র তো বটেই ইউরোপ, ইসরায়েল ও রাশিয়ার বিভিন্ন লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালানো আহ্বান জানিয়েছে আল কায়েদা। গেল সপ্তাহে... আরও পড়ুন

রাশিয়া আইএসের চেয়েও বড় হুমকি: ব্রিটিশ সেনাপ্রধান

রাশিয়াকে জঙ্গীগোষ্ঠী আইএসের চেয়েও বড় হুমকি বলে মনে করছেন ব্রিটিশ সেনাপ্রধান জেনারেল মার্ক কার্লটন-স্মিথ। দৈনিক টেলিগ্রাফে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, যুক্তরাজ্যের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য রাশিয়া এখন আইএসের চেয়ে ‘অনেক বড় হুমকি’। রাশিয়ার পক্ষ থেকে যে ধরনের হুমকি আসছে সে... আরও পড়ুন