লকডাউন চিত্রকথা

রিডার::কানিজ ফাতেমা তিসা

সোমবার, ৮ জুন, ২০২০ ০২:০৪:১০ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
হয়তো ৮দিন

প্রতীকি ছবি

চিত্র ১

রাজি চায়ের কাপে চুমুক দিতে দিতে রাজুকে জিজ্ঞেস করলো দুপুরে কি খাবে?

রাজু: শুটকি ভর্তা আর ডাল।

রাজি: বাসায় যে বাজার আছে আর হয়তো ৮দিন চলবে।

রাজু: আট দিন না ১০-১৫দিন চালাতে হবে কোনো ভাবে।দরকার হলে আমরা একটু না হয় কম কম করে খাবো।

রাজি: হ্যাঁ আমি রাজি আছি,কম কম খাবো আর বেশি ভালো বাসবো।(কথা শেষে হা হা করে হেসে উঠলো রাজি।

রাজু: এই মাসের বেতন আসতে সময় লাগবে আরও। কবে যে লক ডাউন শেষ হবে?

রাজি:  আমি চাই এই লক ডাউন কখনো শেষ না হোক।

রাজু:  কি বলছো এগুলো?অবশ্য আমরা ও মাঝে মাঝে তাই মনে হয়। সময় টা যদি এখনেই থেমে যেতো।

রাজি: বিয়ের পরে আমরা তো কোথাও ঘুরতে যেতে পারিনি।তোমাকে তেমন কাছেও পাইনি লম্বা সময়। তাই আমার জন্য এই লক ডাউন আর্শীবাদ।

রাজু: পাগলি একটা! চলো তাড়াতাড়ি কাজ গুলো সেরে ফেলি দুজনে মিলে। তারপর লুডু খেলবো।

 

চিত্র ২

আরও এক কাপ চা আনো তো।গম্ভীর গলায় বলবো তমাল।

ইপ্সা একটু বিরক্ত হয়ে রান্নাঘরে গেলো। রাতে সিরিয়াল টা দেখা হয়নি আর এখন রিপিটটাও দেখতে পারছেনা সে।

ইপ্সা: এই নাও চা।

তমাল: শুধু চা দিলে?

ইপ্সা: আর কি দেবো?একটু আগে না পুরি করে দিলাম চায়ের সঙ্গে।

তমাল: আর পুরি নেই?

ইপ্সা: না নেই।লক ডাউনটা কবে যে শেষ হবে।খালি সারাদিন বসে বসে ফোন টিপবে আর ফাই ফরমায়েশ করবে।জীবনটা ঝালাপালা করে ছাড়লো।

তমাল: আমি তো অনেক সুখেই আছি।লক ডাউন শেষ হওয়ার দরকার নেই।(অট্টোহাসি হাসলো তমাল)

ইপ্সা: হ্যাঁ তা তো থাকবাই, আমার মত রেডিমেড ফুল টাইম মেইড পেয়েছো তো।সুখে না থেকে করবা কি শুনি?

তমাল: শুধু কি মেইড নাকি সুন্দরী রূপবতী গুণবতী মেইড।

ইপ্সা: ও তাই নাহ?দাঁড়াও লক ডাউন খুলতে দাও ১বছরের জন্য বাবার বাসায় চলে যাবো।

তমাল:  হো হো হো।

 

চিত্র ৩

নিপার আজকে কাবুল পোলাও রাঁধতেই হবে।সকাল থেকে ইউটিউব দেখেই চলেছে। সাথে করবে মোগলাই চিকেন, রোগাঞ্জোশ,আর পুডিং।

শুধু আজকে নয় গতকালও সে ইউটিউব ঘেটে কাবসা রান্না করেছিল।

তার আগের দিন মাখলুবা। চাকরিজীবি হওয়ার সুবাদে ব্যাংকে অনেক ক্যাশ এসেছে এটা ঠিক কিন্তু ১৫বছরের সংসার জীবনে রান্নাটা ভালো করে শেখা হয়নি।আর এই লক ডাউনে সে ১৫বছরের সব রান্না একবারে রান্না করবে বলে ঠিক করেছে।

তাই সে সকাল বিকেল নাবিলকে জিজ্ঞেস করে কি খেতে চাও।দশ বছর বয়সী আয়ানও মার এই রান্নার ঝোঁক দেখে ভীষণ খুশি। সে আল্লাহর কাছে দোয়া করে এই লক ডাউন যেন কখনো শেষ না হয়।

নিপা: আচ্ছা আমি দুপুরের ম্যেনু ঠিক করেছি।তোমরা বিকেলে কি খাবে বলো তো?

নাবিল: কর না তোমার যেটা ভালো লাগে, তবে ঝাল ঝাল কিছু।

আয়ান: মা আমি কিন্তু ডোরা কেক খাবো।তোমাকে কালকে ছবি দেখালাম যে।

নিমা:  আচ্ছা আচ্ছা অবশ্যই করবো। এবার স্কুল খুললে তোমার বন্ধুদের বলবে যে তোমার মাও কিন্তু মাস্টার সেফ।

আয়ান: আর তুমি আমাকে মজার মজার টিফিন করে দিবে কিন্তু। (এক গাল হাসি দিয়ে আয়ান বললো)

নিপা: জো হুকুম জাঁহাপনা।

 

চিত্র ৪

মিতা ঘুমিয়ে যাওয়ার পরে আদিল তার ফোনটা নিল।সকাল ৬টার এলার্মটা অফ করে দিল।আদিল

নিজে মিতার আগে ঘুম থেকে উঠে চা বানালো,ডিম ডুবিয়ে পাউরুটি ভাজলো।

তারপর মিতা কে ডেকে, বিছানায় নাস্তা দিলো।

মিতা: তুমি এগুলো করতে গেলে কেনো?

কয়টা বাজে? আমার এলার্ম টা বাজলো না কেন?

আদিল: কেন যে,আমি সেটা বন্ধ করে দিয়েছিলাম। আমি চেয়েছিলাম আমার লক্ষ্মী বউ টা একটু আরাম করে ঘুমাক।

মিতা: তুমি না,এই পাগলামির মানে হয়। আমি তো করতাম উঠে। তুমি কেন করবে

আদিল: কেন এটা কি কোনো বইতে লেখা আছে যে বউদের কাজ নাস্তা বানানো?

মিতা: না তা নেই কিন্তু তোমার কষ্ট হলো খামোখা।

আদিল: আর সারাবছর যে তোমার কষ্ট হয়।এই লক ডাউনে আমি কাজের থেকে ছুটি পেয়েছি। কিন্তু তোমার তো ছুটি নেই।তাই আজ থেকে তোমার ছুটি। তুমি শুধু বলবে কি করতে হবে, আমি সব করবো।

মিতা: তুমি যে এটা উপলব্ধি করেছ তাই অনেক বড় আমার জন্য। আমরা দুজনে মিলেই সব কাজ করবো। আমি এমনি এমনি বসে থাকতে পারিনা।

আদিল: এই যে এতো কথা বলে দিলে তো নাস্তাটা ঠান্ডা করে। তাড়াতাড়ি খেয়ে নাও।আর লক ডাউন খুলে গেলেও আমি প্রতি ছুটির দিনে তোমাকে তোমার কাজ থেকে ছুটি দেবো।এই লক ডাউন না হলে হয়তো কখনো চোখেই পড়তো না তুমি এতো কাজ করো।

 

চিত্র ৫

বারান্দায় দাঁড়িয়ে চারপাশে তাকিয়ে মেঘলার ভীষণ কান্না পেলো।

সুজন পেছন থেকে এসে মেঘলা কে জড়িয়ে ধরে বললো কেঁদোনা লক্ষ্মীটি। আর কয়েকটা দিন তারপর লক ডাউন শেষ হলেই তোমাকে সুইজারল্যান্ডে নিয়ে যাবো।আরে লক ডাউন না হলে তো কবেই নিয়ে যেতাম।আর কয়েক দিন একটু ধৈর্য্য ধরে থাকোনা প্লিজ।

মেঘলা: তুমি জানোনা আমি এভাবে বাসায় থাকতে পারিনা আমার নিশ্বাস বন্ধ হয়ে আসে।

সুজন: জেনে কি করবো বলো?এখন বাইরে যাওয়া তো রিস্কি হয়ে যায়।

মেঘলা: এভাবে আর কিছু দিন থাকলে আমি পাগল হয়ে যাবো।

সুজন: শুধু তুমি একা না তো পুরো পৃথিবীর মানুষ বাসায় বন্দী জীবন কাটাচ্ছে।পরিস্থিতি টাই এমন।

মেঘলা: আই রিয়েলি ডোন্ট কেয়ার এবাউট আদার্স।আই উইল ডাই।

সুজন: নো প্লিজ ডোন্ট ডাই।হাউ ইউল আই লিভ উইদাউট ইউ?ওকে শো মি ইওর নিউ শাড়ি।

মেঘলা: চলো ছাদে যাই,শাড়ি পড়ি তুমি আমার ছবি তুলে দাও।

সুজন: আচ্ছা চলো ছবি তুলি।লক ডাউনে আমার একটাই তো কাজ, তোমার ছবি তোলা।

মেঘলা: তোমার সৌভাগ্য বুঝলা।কত ছেলে ছবি তুলতে চেয়েছিল। কিন্তু সবার কপালে কি সব সুখ থাকে?

সুজন:  জ্বি ম্যাডাম। অবশ্যই আমার সৌভাগ্য।

 

চিত্র ৬

রহমান সাহেবের দুই ছেলে দুই মেয়ে।সবাই কর্মস্থলের কাছাকাছি থাকে।তাই রহমান সাহেবের বিশাল বাড়িতে তিনি আর তার স্ত্রী দুটি প্রাণী আছেন। পত্রিকার পাতায় চোখ রেখে রেহানা বেগম কে তিনি বললেন,দেখেছো দেশের অবস্থা? দিন দিন কভিড রুগি বেড়েই চলেছে।জানিনা ভাগ্যে কি লেখা আছে আমাদের।ছেলেমেয়েদের কত মাস হয় দেখিনা। আর কবে দেখবো জানিনা।

রেহানা বেগম: ভালো কথা বলো তো। অবশ্যই তাড়াতাড়ি দেখা হবে। আমি আল্লাহর কাছে দোয়া করি যেন তাড়াতাড়ি সব ঠিক হয়ে যায়।

রহমান সাহেব: আমিও দোয়া করি তোমার দোয়া আল্লাহ কবুল করে নিক।

কখনো কি ভেবেছিলাম এমন ও দিন আসবে।তাহলে ছেলেমেয়েদের কখনো দূরে থাকতে দিতাম না।

রেহানা বেগম: কে জানতো এমন টা হবে।পুরো জীবন টা কাটিয়ে দিয়েছি ওদের কে বড় করতে।

নিজেকে নিয়ে কখনো ভাবিনি।আজ যখন আমার এতো অবসর,তখনও আমি ওদের কথাই ভাবি।

রহমান সাহেব: মায়েরা বোধহয় এমনই হয়।

রেহানা বেগম: কেন শুধু মারা কেন, তুমি ভাবো না নাকি ওদের নিয়ে?

রহমান সাহেব: কই আমার ইনসুলিনের সময় হয়ে গেছে নিয়ে এসো।

রেহানা বেগম: ও হ্যাঁ আনছি। বাসায় বসে বসে নিউজ দেখে দেখে কিভাবে যে সময় গুলো চলে যায় বুঝিনা। (বলতে বলতে উঠে গেলেন তিনি)

পত্রিকার সব খবর উল্টেপাল্টে দেখতে দেখতে রহমান সাহেবের চোখ আটকে গেলো একটা খবরে।যেখানে করোনায় আক্রান্ত শ্বাশুড়ি কে তার ছেলের বউ নর্দমার পাশে ফেলে রেখে যায়।ইশ কি কষ্ট এই বৃদ্ধ বয়সে।রহমান সাহেব নিজের অজান্তে ভাবুক হয়ে উঠেন।

 

চিত্র ৭

করিম মিয়ার চায়ের দোকানে এখন আর সেই আগের মত ব্যবসা নেই।প্রতিদিন কষ্ট করে হয়তো ৪০/৫০ টাকা রোজগার হয়।সেই টাকায় ৮জন সদস্যের সংসারের বাজার হয়না। কখনো এটা থাকে তো ওটা থাকে না।বিকেলে বাড়ি ফেরার সময় হলে করিম মিয়ার চিন্তায় কপালে ভাঁজ পড়ে। এতো গুলো মুখ তার পথ চেয়ে বসে থাকে।

তার ভিতর তার বউ সুখির জীবনটাই অনেক দুঃখের।

করিম মিয়া: বউ আজকে শুধু বাইগুন আইঞ্চি।চলব না?

সুখি: হাসি হাসি মুখ করে।কি বলেন আপনে।পোঁড় মরিচ দিয়া বাইগুন ভর্তা বানাইমু।পোলাপান সব মজ কইরা খাইবো আপনি চিন্তা নিয়েন না।গোসল কইরা আসেন।

করিম মিয়ার সারাদিনের যত ক্লান্তি এই সুখির মুখের হাসি দেখলেই শেষ হয়ে যায়। আরও অনেক বছর বাঁচতে ইচ্ছে করে তার।দেখতে ইচ্ছে করে এই হাসি মাখা মুখ আরও হাজারো বছর।

কত আশা নিয়ে মা এই সুখির সাথে বিয়ে দিয়েছিল তার।ভেবেছিল তার ছেলেও সুখি হবে এবার।কিন্তু ওই যে উপর ওয়ালার লিখন।একের পর এক কষ্ট লেগেই আছে জীবনে। আগে করিম মিয়া ভাড়ার রিক্সা চালাতো। অনেক কষ্টে টাকা জমিয়ে চায়ের দোকান দিলো, দুই মাস খুব ভালো ছিল তারা।কিন্তু করোনার এই লক ডাউনে আবারও তাদের অভাব আসে। আর অভাব আসলে ভালোবাসা নাকি দরজা দিয়ে চলে যায়?

গরীবের আবার দরজা কি আর জানালা কি?মানুষ চাইলে যেকোনো পরিস্থিতি তে ভালো থাকতে পারে। ভালো থাকতে জানতে হয়।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

সৌদি আরবের সাবেক গোয়েন্দা প্রধান ও নিরাপত্তা উপদেষ্টা সাদ আল-জাবরির ছেলে-মেয়েকে কারাবন্দী অথবা হত্যা করা... আরও পড়ুন

সৌদি আরবের সাবেক গোয়েন্দা প্রধান

নিজেদের ভুলের মাশুল নিজেদেরকেই গুণতে হলো ইসরায়েলকে। নিজেদের উপশহরে ভুল করে রকেট ছুড়েছে ইসরাইলি সামরিক... আরও পড়ুন

নিজেদের ভুলের মাশুল নিজেদেরকেই গুণতে

ফের মা হতে চলেছেন বি-টাউন অভিনেত্রী কারিনা কাপুর খান। ‘সাইফিনা’ জুটি আপাতত দিন গুনছেন তাঁদের... আরও পড়ুন

তৈমুরের অপেক্ষা

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের মাধ্যমে তেহেরানের বিরুদ্ধে অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়ানোর যে চেষ্টা করছে ওয়াশিংটন করে... আরও পড়ুন

ওয়াশিংটন করে যাচ্ছে তা

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাইল মুরশকো এক যৌথ ‍বিবৃতিতে বলেছেন, তাদের তৈরী ভ্যাকসিন... আরও পড়ুন

আগে স্বাস্থ্য কর্মীরা এবং

করোনা চিকিৎসায় নানা কেলেঙ্কারির মাঝে পদ থেকে সরে দাঁড়ানো স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক ডা. আবুল... আরও পড়ুন

বিবেকবোধ ও সদিচ্ছা থেকে নিজের জীবনকে

বি-টাউনের মুন্নাভাই সঞ্জয় দত্ত ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন।বর্তমানে তাঁর ক্যান্সসার তৃতীয় পর্যায় রয়েছে।শিগগিরই চিকিৎসার জন্য... আরও পড়ুন

সঞ্জয় দত্ত ফুসফুসের

মুক্তি পেয়েছে পরিচালক মহেশ ভাটের ‘সড়ক ২’ সিনেমার ট্রেলার। নব্বইয়ের দশকের ছবি ‘সড়ক’ সিনেমার আমেজ... আরও পড়ুন

রেখেই সিক্যুয়েল তৈরী

ইরাকের স্বায়ত্তশাসিত কুর্দিস্তান অঞ্চলে তুর্কি সামরিক ড্রোন হামলায় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর শীর্ষ পর্যায়ের দুই কর্মকর্তা নিহত... আরও পড়ুন

কুর্দিস্তান অঞ্চলে তুর্কি

যুক্তরাষ্ট্রের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেট দলের প্রার্থী জো বাইডেন তাঁর রানিং মেট হিসাবে ভারতীয় বংশোদ্ভুত... আরও পড়ুন

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেট দলের প্রার্থী

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Recommended for you

করোনার সংকটে কেমন আছে আফগান-ফিলিস্তিনীরা?

কভিড-১৯ ভাইরাসের প্রার্দুভাবে গভীর সংকটে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানের নাগরিকরা। ২০০১ সালে যুদ্ধ শুরুর পর থেকে যে কোন পরিস্থিতিতে দেশটির নাগরিকরা প্রতিবেশী দেশগুলোতে সহযোগীতায় কোনভাবে বেঁচে আছেন। তালেবান গুপ্ত হামলা, কঠোর রক্ষণশীল... আরও পড়ুন

নালিশ করে কী হবে?

কোন পুরুষের সাথে সম্পর্ক চলার সময় একমাত্র শারীরিক চাওয়া থেকেই আপনি মানে নারী বিছানায় যেতে পারেন, প্রতিশ্রুতি থেকে নয়। প্রতিশ্রুতি অর্থাৎ বিয়ে কালচারের এতোই যদি আপনি পক্ষে হোন তবে বিয়ে অব্দি অপেক্ষা করুন। প্রতিশ্রুতি একটি আপেক্ষিক ব্যাপার এইটা যদ্দিন না... আরও পড়ুন

বিধিনিষেধ চালু আছে যার

বাবার অবাধ্য সৌদি মেয়েদের ঠিকানা কারাগারে?

এই ক’দিন হল, গাড়ির স্টিয়ারিং উঠেছে সৌদি নারীদের হাতে। পর পর খেলার মাঠে যেয়ে খেলা দেখার সুযোগও হয়েছে। একবিংশ শতাব্দিতে দাঁড়িয়ে এমন কথাও শুনতে আজব মনে হতে পারে। এখনও দেশটিতে এমন বহু বিধিনিষেধ চালু আছে, যার কারণে নারীরা নিজেদের সিদ্ধান্তগুলো... আরও পড়ুন

আসিয়া বিবিকে আশ্রয়

আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চান ট্রুডো

পাকিস্তানে ধর্ম অবমাননার দায়ে অভিযুক্ত হয়ে মৃত্যুদন্ডের শাস্তি নিয়ে আট বছর পর কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়া খ্রিস্টান নারী আসিয়া বিবিকে আশ্রয় দিতে চায় কানাডা। দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এ কথা জানিয়েছেন। পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট আসিয়া বিবিকে মুক্তির আদেশ দেওয়ার আগে... আরও পড়ুন

মধ্যপ্রাচ্যের যে দেশটি

আট ছবিতে সিরিয়ার যুদ্ধ কথা

আরব বসন্তের চারায় মধ্যপ্রাচ্যের যে দেশটি সহস্র রজনী যুদ্ধ করে আসছে নাম তার সিরিয়া।প্রাচীনতম ইতিহাস যার কোল জুরে। আজ সাত বছর ধরে জ্বলছে সেই সিরিয়া। মুসলিম বিশ্বে অন্যতম বৃহৎ এই দেশটির সরকার আসাদের পক্ষে কল কবজা নাড়ছে রাশিয়া ও ইরান।পাশে... আরও পড়ুন