বন্যপ্রাণী ধ্বংসে জুনেটিক রোগের প্রার্দুভাব বাড়বে:জাতিসংঘ

রিডার::জেনেভা

মঙ্গলবার, ৭ জুলাই, ২০২০ ০২:০৮:০৯ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
বন্যপ্রাণীর সুরক্ষায় ও

বন্যপ্রাণী অভয়রণ্যকে ধ্বংসের দিকে পৌঁছে দেওয়া আজ গোটা বিশ্ব করোনা ভাইরাসের মতো মহামারীতে ধুকছে।বন্যপ্রাণীর সুরক্ষায় ও পরিবেশ সংরক্ষণে এখনই কার্যকরী পদক্ষেপ না নেওয়া হলে প্রাণীর মাধ্যমে মানুষের রোগ ছড়িয়ে পড়বে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞরা।

করোনা ভাইরাসের মতো রোগের উদ্ভবের জন্য প্রাণিজ প্রোটিনের উচ্চ চাহিদা, কৃষির অপরিবর্তন ধরণ ও জলবায়ু পরিবর্তনকে দায়ী করেছেন তারা।

বিবিসি এক প্রতিবেদনে বলছে, জাতিসংঘ পরিবেশ কর্মসূচী ও আন্তর্জাতিক প্রাণিসম্পদ গবেষণা ইনস্টিটিউট এমন সতর্কী বার্তা দিয়েছে।অবহেলিত জুনোটিক রোগে এক বছরে ২০ লাখ মারা যায় বলে জানিয়েছেন তারা। ইবোলা, ওয়েস্ট নাইল ভাইরাস ও সার্স-ও জুনোটিক রোগ। এই রোগগুলো প্রাণীদের মধ্যে শুরু হয়ে পরে মানুষের মাঝে ছড়িয়ে পড়েছিল।

কিন্তু মানুষের মাঝে এসব সংক্রমণ প্রাকৃতিকভাবে ছড়ায়নি, এগুলোকে ডেকে নিয়ে আসা হয়েছে। আমাদের প্রাকৃতিক পরিবেশের ক্ষতি করার মাধ্যমে এটি করা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে আছে ভূমির অবক্ষয়, বন্যপ্রাণী নিধন ও অবৈধভাবে সেগুলোকে বন্দি করা, খনিজ সম্পদ আহরণ ও জলবায়ু পরিবর্তন।

এসব প্রক্রিয়া প্রাণী ও মানুষের মধ্যে যোগাযোগে উপায়কে পরিবর্তিত করে দিচ্ছে।

গত শতাব্দীতে আমরা নভেল করোনাভাইরাসের মতো অন্তত ছয়টি বড় ধরনের প্রাদুর্ভাব দেখেছি — বলেছেন জাতিসংঘ পরিবেশ কর্মসূচীর আন্ডার-সেক্রেটরি জেনারেল ও নির্বাহী পরিচালক ইঙ্গর আনাসন।ত দুই দশকে এবং কোভিড-১৯ এর আগে জুনোটিক রোগে কারণে ১০০ বিলিয়ন ডলার অর্থনৈতিক ক্ষতি হয়।

অ্যানথ্রাক্স, বোভাইন টিউবারকুলোসিস ও জলাতঙ্কের মতো স্থানীয় জুনোটিক রোগগুলোতে নিম্ন ও মধ্য আয়ের দেশগুলোতে প্রতি বছর ২০ লাখ লোক মারা যায়। এগুলো প্রায়ই জটিল উন্নয়ন সমস্যাযুক্ত, গবাদিপশুর ওপর অতিরিক্ত নির্ভশীল ও বন্যজীবের সান্নিধ্যে থাকা সমাজগুলোতেই ঘটেছে।

গত অর্ধশত বছরে বিশ্বজুড়ে মাংস উৎপাদন ২৬০ শতাংশ বেড়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ব্যাখ্যা করে আনাসন বলেন — বনের জায়গা দখল করে আমরা কৃষির সম্প্রসারণ ঘটিয়েছি, অবকাঠামো গড়ে তুলেছি ও খনিজ সম্পদ আহরণ করেছি।

মানুষের ২৫ শতাংশ সংক্রামক রোগের সঙ্গে বাঁধ, সেচ ও শিল্পভিত্তিক খামারগুলোর যোগ আছে। ভ্রমণ, পরিবহন ও খাদ্যের সাপ্লাই চেইনগুলো সীমান্ত ও দূরত্ব মুছে দিচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তন জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখছে।

বিশেষজ্ঞদের এই প্রতিবেদনে ভবিষ্যত প্রাদুর্ভাবগুলো প্রতিরোধে সরকারগুলোকে বিভিন্ন কৌশল গ্রহণের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, এগুলোর মধ্যে টেকসই জমি ব্যবস্থাপনাকে উৎসাহিত করা, জীববৈচিত্র্যের উন্নয়ন ও বৈজ্ঞানিক গবেষণায় বিনিয়োগ অন্যতম।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।