দিল্লীর তখতে ফের কেজরিওয়াল

রিডার::ভারত

বুধবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ১২:৩৪:০৩ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
আবারও জিতে নিল আম

 

বিধানসভা নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো ভারতের রাজধানী দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। একবার ফের জনতার আস্থা আবারও জিতে নিল আম আদমি পার্টি(এএপি)।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) ও জাতীয় নাগরিকপঞ্জি(এনআরসি) নিয়ে উত্তাল দেশটি।বিধানসভা নির্বাচনে যেন সমুচিতত জবাব পেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আর তাঁর দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভোটের চূড়ান্ত ফল সামনে আসার পরই টুইটারে অভিনন্দন বার্তা দিয়ে মোদী লেখেন — দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভের জন্য আপ এবং কেজরিওয়ালকে অভিনন্দন। দিল্লিবাসীর আকাঙ্খা পূরণের জন্য তাদেরকে শুভেচ্ছা জানাই।

পাল্টা জবাবে মোদীর উদ্দেশে টুইট করেন কেজরিওয়ালও। তিনি লেখেন — ধন্যবাদ স্যর। রাজধানীকে বিশ্বমানের নগরে পরিণত করতে কেন্দ্রের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার জন্য অধীর অপেক্ষায় রইলাম।

গতকাল ভোটগণনা শুরু হওয়ার কিছু ক্ষণের মধ্যেই আম আদমি পার্টির (আপ) জয় নিশ্চিত হয়ে যায়। বেলা যত বেড়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সঙ্গে আপের জয়ের ব্যবধানও ততই স্পষ্ট হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের চূড়ান্ত ফলে বিধানসভার ৭০ আসনের মধ্যে আপের আসন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬২ তে। প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি’র আসন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮ টিতে। আর কংগ্রেস পার্টি কোনো আসনই পায়নি। আম আদমির আসন এবার কিছুটা কমলেও বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়েই দলটি ক্ষমতায় আসছে।

ভোটে প্রাথমিকভাবে জয় নিশ্চিত হওয়ার পরই কেজরিওয়াল বলেছিলেন — কাজ দেখেই মানুষ ভোট দিয়েছেন’। এরপরই দিল্লিতে সাধারণ মানুষের উদ্দেশে বার্তা দেন কেজরিওয়াল। তিনি বলেন, ‘‘এ জয় মানুষের জয়। কাজে বিশ্বাস রেখে ভোট দিয়েছেন সবাই। নতুন রাজনৈতিক যুগের সূচনা করেছেন।’

দিল্লিবাসীকে ধন্যবাদ দিয়ে তিনি বলেন — তৃতীয় বার আম আদমি পার্টির উপর ভরসা রাখার জন্য দিল্লিবাসীকে ধন্যবাদ। যারা আমাকে নিজের ছেলে বলে মনে করেন, যারা আমাদের ভোট দিয়েছেন, আজকের এই জয় তাদের জয়।

যদিও এবারের ভোটে কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি (আপ) গতবারের চেয়ে ৫ টি আসন কম পেয়েছে। গত বিধানসভা ভোটে (২০১৫ সাল) আপ পেয়েছিল ৬৭ টি আসন। আর বিজেপি পেয়েছিল তি বিধানসভা নির্বাচনে তৃতীয়বারের মতো ভারতের রাজধানী দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। একবার ফের জনতার আস্থা আবারও জিতে নিল আম আদমি পার্টি(এএপি)।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) ও জাতীয় নাগরিকপঞ্জি(এনআরসি) নিয়ে উত্তাল দেশটি।বিধানসভা নির্বাচনে যেন সমুচিতত জবাব পেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আর তাঁর দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)।

গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ভোটের চূড়ান্ত ফল সামনে আসার পরই টুইটারে অভিনন্দন বার্তা দিয়ে মোদী লেখেন — দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভের জন্য আপ এবং কেজরিওয়ালকে অভিনন্দন। দিল্লিবাসীর আকাঙ্খা পূরণের জন্য তাদেরকে শুভেচ্ছা জানাই।

পাল্টা জবাবে মোদীর উদ্দেশে টুইট করেন কেজরিওয়ালও। তিনি লেখেন — ধন্যবাদ স্যর। রাজধানীকে বিশ্বমানের নগরে পরিণত করতে কেন্দ্রের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার জন্য অধীর অপেক্ষায় রইলাম।

গতকাল ভোটগণনা শুরু হওয়ার কিছু ক্ষণের মধ্যেই আম আদমি পার্টির (আপ) জয় নিশ্চিত হয়ে যায়। বেলা যত বেড়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সঙ্গে আপের জয়ের ব্যবধানও ততই স্পষ্ট হয়েছে।

নির্বাচন কমিশনের চূড়ান্ত ফলে বিধানসভার ৭০ আসনের মধ্যে আপের আসন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬২ তে। প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি’র আসন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮ টিতে। আর কংগ্রেস পার্টি কোনো আসনই পায়নি। আম আদমির আসন এবার কিছুটা কমলেও বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়েই দলটি ক্ষমতায় আসছে।

ভোটে প্রাথমিকভাবে জয় নিশ্চিত হওয়ার পরই কেজরিওয়াল বলেছিলেন — কাজ দেখেই মানুষ ভোট দিয়েছেন’। এরপরই দিল্লিতে সাধারণ মানুষের উদ্দেশে বার্তা দেন কেজরিওয়াল। তিনি বলেন, ‘‘এ জয় মানুষের জয়। কাজে বিশ্বাস রেখে ভোট দিয়েছেন সবাই। নতুন রাজনৈতিক যুগের সূচনা করেছেন।’

দিল্লিবাসীকে ধন্যবাদ দিয়ে তিনি বলেন — তৃতীয় বার আম আদমি পার্টির উপর ভরসা রাখার জন্য দিল্লিবাসীকে ধন্যবাদ। যারা আমাকে নিজের ছেলে বলে মনে করেন, যারা আমাদের ভোট দিয়েছেন, আজকের এই জয় তাদের জয়।

যদিও এবারের ভোটে কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি (আপ) গতবারের চেয়ে ৫ টি আসন কম পেয়েছে। গত বিধানসভা ভোটে (২০১৫ সাল) আপ পেয়েছিল ৬৭ টি আসন। আর বিজেপি পেয়েছিল তিনটি। এবারও আম আদমির স্রোতে বিজেপি ভেসে গেলেও গতবারের চেয়ে ৫ টি আসন তারা বেশি পেয়েছে। বিজেপি’র ভোটও বেড়েছে।

গতবার বিজেপির ভোট ছিল ৩২ শতাংশ। এবার প্রায় ৬ শতাংশ বেশি ভোট পেয়েছে দল। আসন সংখ্যাও বাড়ছে তা নিশ্চিত। কিন্তু সরকার গঠনের স্বপ্ন এখনো দলটির অধরা।নটি। এবারও আম আদমির স্রোতে বিজেপি ভেসে গেলেও গতবারের চেয়ে ৫ টি আসন তারা বেশি পেয়েছে। বিজেপি’র ভোটও বেড়েছে। গতবার বিজেপির ভোট ছিল ৩২ শতাংশ। এবার প্রায় ৬ শতাংশ বেশি ভোট পেয়েছে দল। আসন সংখ্যাও বাড়ছে তা নিশ্চিত। কিন্তু সরকার গঠনের স্বপ্ন এখনো দলটির অধরা।

 

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Recommended for you

বিজেপি শাসিত ভারতের

দেবতা হনুমান ‘দলিত’!

এ এক অবাক করা মন্তব্য! হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের দেবতা হনুমানজিকে একেবারে ‘দলিত’ শ্রেণিতে অন্তর্ভুক্ত করেছেন বিজেপি শাসিত ভারতের উত্তর প্রদেশ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বলেছেন, বজরঙ্গবলী (হনুমানজি) ‘দলিত’। যোগী আদিত্যনাথের এই... আরও পড়ুন