তেহরানে সোলেমানির মরদেহ পৌঁছেছে

রিডার::ইরান

রবিবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২০ ০৩:০৯:২৩ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  

তেহরান বিমানবন্দরে কাসেম সোলেমানিসহ হামলায় নিহতদের মরদেহ-আলজাজিরা

 

ইরানে জাতীয় বীরই হিসাবে নন্দিত কুদস ফোর্সের প্রধান কাসেম সোলেমানি।দুর্দান্ত সাহসী তিনি বটেই, বুদ্ধিমত্তায় জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস দম করে ইরাকেও তিনি সমজনপ্রিয়তা কুড়িয়েছেন।

মার্কিনী হামলায় সেই মানুষটাকে গত বৃহস্পতিবার রাতে প্রাণ দিতে হল।

আজ রবিবার ইরানের আহভাজ শহরে তাঁর মরদেহ পৌঁছলে শেষবারের মতো তাঁকে বিদায় জানাতে জড়ো হয়েছে লাখো ইরানি।

দেশটির রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আইআরআইবর বলছে—বিমান থেকে ইরানের পতাকাখচিত একটি কফিন নামানোর সময় সামরিক বাদকদলকে রাষ্ট্রীয় শোক সঙ্গীত বাজানো হয়।

 

ইরানের আহভাজ শহরে সোলেমানি সমর্থকদের শোকযাত্রা

 

এর আগে ইরাকের কারবালা শহর থেকে শুরু করে নাজাফ অবদি শোকযাত্রার আয়োজন করে ক্ষমতাধর প্যারামিলিটারি গ্রুপ হাশদ আশ-শাবি(পিএমএফ)।

এসময় মরদেহর গাড়ি ঘিরে সমর্থকরা স্লোগান দিতে থাকেন-হতাশ হয়েও না বীর, তুমি আমাদের হতাশ করোনি।

এসময় তাদের পরনে কালো পোশাক আর হাতে ছিল হাশদ আল-শাবির হলুদ পতাকা।

ইরানি রেভুলিউশনারি গার্ডের বিদেশি শাখার এই নেতা যুদ্ধক্ষেত্রে মিলিশিয়াদের উদ্বুদ্ধ করে ও রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে সংলাপ চালিয়ে মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে ইরানের প্রক্সি যুদ্ধে সহায়তা করেছিলেন।

অভিজাত বাহিনী ‘কুদস ফোর্সের’ অধিনায়ক হিসেবে এবং সিরিয়া ও ইরাক যুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার জন্য দেশে-বিদেশে ‘সেলিব্রিটি’র খ্যাতি পেয়েছেন মেজর জেনারেল সোলেমানি।

 

ইরাকের কারাবালা শহরে সোলেমানি সমর্থকদের শোকযাত্রা

 

তাঁর সক্রিয় ভূমিকা ছিল মধ্যপ্রাচ্যে ইরানি প্রভাব বিস্তারে, যার মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্র ও তেহরানের আঞ্চলিক শত্রু সৌদি আরব ও ইসরায়েলকে বেগ পেতে হয়েছে।

সিরিয়ায় বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের যুদ্ধ জয়, ইরাকে ইরানপন্থি আধাসামরিক বাহিনীর উত্থান, ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে যুদ্ধসহ আর অনেক যুদ্ধের ‘কুশলী’ হিসেবে তিনি সুপরিচিত।

কখনো ক্যারিশমাটিক, কখনো সুকৌশলী সাদা চুলের এই কমান্ডার কারো কাছে নন্দিত, কারোর কাছে ছিলেন নিন্দিত। তাকে ঘিরে তৈরি হয়েছে অনেক রহস্য ও সোশাল মিডিয়ায় রয়েছে অনেক মিম।

দীর্ঘ দিন পর্দার আড়ালে থেকে গোপন অভিযান পরিচালনা করে ইরানে সুখ্যাতি ও জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর সাম্প্রতিক বছরগুলিতে তিনি প্রকাশ্যে আসেন। তাকে নিয়ে তৈরি হয়েছে তথ্যচিত্র, সংবাদ, এমনকি পপ সংগীতও।

 

বীরের মৃত্যুতে ফুঁসছে ইরান

 

 

২০১৩ সালের কথা উল্লেখ করে বিবিসি লিখেছে, সাবেক সিআইএ কর্মকর্তা জন ম্যাগুইয়ার দ্য নিউ ইয়র্কারকে বলেন, সোলেমানি ছিলেন ‘মধ্যপ্রাচ্যে সর্বোচ্চ ক্ষমতাধর একক অপারেটিভ’।

গত ২০ বছরে পশ্চিমা দেশ, ইসরায়েল ও আরব সংস্থাগুলোর একাধিক বার হত্যাচেষ্টাকে বিফল করে দিয়েও তিনি বেঁচেছিলেন বলে আল-জাজিরা লিখেছে। কিন্তু হঠাৎ সহিংসতার মধ্যেই তার জীবনের যবনিকাপাত হলো।

প্রেসিডেন্ট ডলাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে শুক্রবার ভোরে চালানো সফল বিমান হামলায় তিনি নিহত হন বলে পেন্টাগন ঘোষণা দিয়েছে।

ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় এক মার্কিন সামরিক ঠিকাদারের মৃত্যুকে ঘিরে যুক্তরাষ্ট্র, ইরান ও ইরানসমর্থিত ইরাকি গোষ্ঠীগুলোর মধ্যে টান টান উত্তেজনার মধ্যে চালানো হলে এ হত্যা অভিযান। ওই ঘটনার জন্য যুক্ত ইরানকে দায়ী করে আসছিল।

ঘটনাটির পর ইরান সমর্থিত কাতাইব হেজবুল্লাহর উপর বিমান হামলা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। জবাবে মিলিশিয়া সমর্থকরা বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাসে হামলা চালায়।

 

 

খুব দরিদ্র পরিবার থেকে অল্প শিক্ষা নিয়ে এসেছিলেন মনে করা হয়। কিন্তু ইরানের সবচেয়ে অভিজাত ও শক্তিশালী বাহিনীর ভেতর দিয়েই তার উত্থান ঘটেছিল। তিনি ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খোমেনির ঘনিষ্ঠও হয়ে উঠেছিলেন।

১৯৯৮ সালে কুদস ফোর্সের অধিনায়ক হওয়ার পর গোপন অভিযান পরিচালনা, মিত্রদের অস্ত্র সরবরাহ এবং ইরানের অনুগত মিলিশিয়াদের মধ্যে যোগাযোগ স্থাপনের মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যে ইরানের প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করেছিলেন সোলেমানি।

বিস্তৃত কর্মজীবনে তিনি সাবেক স্বৈরশাসক সাদ্দাম হুসেনের বিরুদ্ধে ইরাকে লড়াইয়ে থাকা শিয়া মুসলিম ও কুর্দি গোষ্ঠীগুলিকে সহায়তা করেছিলেন বলে মনে করা হয়। পাশাপাশি লেবাননের শিয়া জঙ্গি সংগঠন হিজবুল্লাহ এবং ফিলিস্তিনের ভূখণ্ডে ইসলামী সংগঠন হামাসসহ এ অঞ্চলের অন্যান্য গোষ্ঠীগুলোকেও সহায়তা করেছেন।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।