ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধসহ ৭ দফা দাবিতে উত্তপ্ত বুয়েট

রিডার:: ফাহাদ মোল্লা:: ঢাকা

মঙ্গলবার, ৮ অক্টোবর, ২০১৯ ০৬:০৪:১৭ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
আবরার ফাহাদকে

আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়িতদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থীরা।

‘বুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীবৃন্দ’ ব্যানারের এই মিছিল থেকে শিক্ষার্থীরা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে আবরার হত্যার বিচার করে খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা এবং ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নিশ্চিতভাবে এ হত্যায় শনাক্ত হওয়া খুনীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবন বহিষ্কারসহ সাত দফা দাবি তুলে ধরেন তারা।

আজ মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় বুয়েট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি বের হয়। শেরে বাংলা হলের পেছন দিয়ে ঢুকে ডা. এম এ রশিদ হল পার হয়ে শেরে বাংলা হল প্রদক্ষিণ করে মিছিলটি।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বলেন, বুয়েট ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতির নামে শিক্ষার্থীদের খুন করা হচ্ছে। এটা কোনোমতেই কাম্য নয়। আমরা ক্যাম্পাসে রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানাই।

পরবর্তীতে তাদের এ দাবির সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করেন বুয়েটের ছাত্র কল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. একেএম মাসুদ।

অধ্যাপক মিজানুর রহমান বলেন, আমার মনে হয় না কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্ররাজনীতির কোনো প্রয়োজন আছে। বিশেষ করে বর্তমান প্রেক্ষাপটে। বুয়েটেও নিষিদ্ধ করা উচিত।

কবে নিষিদ্ধ করা হবে- জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি এখানে বসে লিখে দিলে কিংবা বলে দিয়ে হয়ে যাবে না।

তবে এসব বিষয় নিয়ে বুয়েটের ভিসি অধ্যাপক সাইফুল ইসলামের সঙ্গে যত দ্রুত সম্ভব কথা বলবেন বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়টির ছাত্রকল্যাণ পরিচালক।

অপরদিকে শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. একেএম মাসুদও চান ক্যাম্পাসে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ হোক।

তিনি বলেন, ‘বাবা-মা শিক্ষার্থীদের আমাদের হাতে তুলে দিয়ে গেছেন, কিন্তু আমরা দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছি। আমরা শিক্ষার্থীদের সব দাবির সঙ্গে একমত।’

শেরে বাংলা হলেরই আবাসিক শিক্ষার্থী ছিলেন আবরার ফাহাদ। গত রবিবার রাতে তাকে তার ১০১১ নম্বর রুম থেকে ডেকে নিয়ে যান বুয়েট ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা।

ওই হলেরই ২০১১ নম্বর রুমে নিয়ে তাকে বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার তথ্য জানিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতারাই। পরে আর রুমে ফিরে আসেননি আবরার।

গতকাল সোমবার ভোর ৪টার দিকে তার নিথর দেহ পাওয়া যায় হলের সিঁড়ির নিচে। তার পুরো শরীরে ছিল আঘাতের চিহ্ন। সহপাঠীদের অভিযোগ, ছাত্রলীগের নেতারা পিটিয়ে মেরে ফেলেছেন আবরারকে।

আবরার হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে মঙ্গলবারের বিক্ষোভ মিছিল থেকে খুনীদের বিচারের দাবিতে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন স্লোগান দেন।

এর মধ্যে রয়েছে-‘খুনীদের ঠিকানা, এই বুয়েটে হবে না’, ‘ফাঁসি ফাঁসি, ফাঁসি চাই’, ‘প্রশাসনের দুই গালে, জুতা মারো তালে তালে’, ‘ভিসি তুই নিরব কেন, জবাব চাই, দিতে হবে’, ‘আমার ভাইকে মারলি কেন? জবাব চাই দিতে হবে’, ‘আমার ভাইয়ের রক্ত, বৃথা যেতে দেবো না’।

বিক্ষোভকারীরা আবরারের খুনীদের বিচারসহ সাত ধফা দাবি জানিয়েছেন। দাবিগুলো হলো-খুনীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

৭২ ঘণ্টার মধ্যে নিশ্চিতভাবে শনাক্ত করা খুনীদের সকলের ছাত্রত্ব আজীবনের জন্য বাতিল নিশ্চিত করতে হবে; আবরার হত্যায় দায়ের করা মামলা দ্রুত বিচার ট্রাইবুনালের অধীনে স্বল্পতম সময়ে নিষ্পত্তি করতে হবে; আবরার হত্যার ৩০ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য কেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হননি, তা তাকে সশরীরে ক্যাম্পাসে এসে আজ মঙ্গলবার বিকেল ৫টার মধ্যে জবাবদিহি করতে হবে।

একইসঙ্গে ডিএসডব্লিউ কেন ঘটনাস্থল থেকে পালিয়েছেন, তাকে আজ বিকেল ৫টার মধ্যে সবার সামনে সে বিষয়ে জবাবদিহি করতে হবে;

আবাসিক হলগুলোতে র‍্যাগের নামে এবং ভিন্ন মতাবলম্বীদের ওপর সব ধরনের শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন বন্ধে জড়িত সবার ছাত্রত্ব বাতিল করতে হবে।

একইসঙ্গে আহসানউল্লা হল ও সোহরাওয়ার্দী হলের আগের ঘটনাগুলোতে জড়িত সবার ছাত্রত্ব বাতিল আগামী ১১ নভেম্বরের বিকেল ৫টার মধ্যে নিশ্চিত করতে হবে; রাজনৈতিক ক্ষমতা ব্যবহার করে আবাসিক হল থেকে ছাত্র উৎখাতের ব্যাপারে অজ্ঞ থাকা ও ছাত্রদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হওয়ায় শেরে বাংলা হলের প্রভোস্টকে ১১ নভেম্বর বিকেল ৫ টার মধ্যে প্রত্যাহার করতে হবে; মামলা চলাকালীন সব খরচ ও আবরারের পরিবারের সব ধরনের ক্ষতিপূরণ বুয়েট প্রশাসনকে বহন করতে হবে।

শেরে বাংলা হল ও রশিদ হলসহ বুয়েটের ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ শেষে শিক্ষার্থীরা শহীদ মিনারে অবস্থান নেন। সেখানে বুয়েটের উপাচার্য সাইফুল ইসলামকে বিকেল ৫টার মধ্যে শহীদ মিনারে আসার আল্টিমেটাম দেন শিক্ষার্থীরা।

আবরার হত্যার ঘটনায় সোমবার সারাদিনই বুয়েট ক্যাম্পাস ছিল উত্তাল। সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর পুলিশের দুই অতিরিক্ত কমিশনার এলে তাদেরও শেরে বাংলা হল অফিসে অবরুদ্ধ করে রাখেন শিক্ষার্থীরা।

পরে আবরার হত্যার আলামত হিসেবে জব্দ সিসিটিভি ফুটেজের কপি শিক্ষার্থীদের কাছে হস্তান্তর করে তবেই ছাড়া পান দুই পুলিশ কর্মকর্তা। আবরার বুয়েটের তড়িৎকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন।

তিনি শেরেবাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন। তার গ্রমের বাড়ি কুষ্টিয়া শহরের মুক্তিযোদ্ধা রোডে। বাবার নাম বরকত উল্লাহ।

বুয়েট শিক্ষার্থীরা বলছেন, সম্প্রতি বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে হওয়া চুক্তি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়াকে কেন্দ্র করে রোববার (৬ সেপ্টেম্বর) রাতে ‘শিবির’ আখ্যা দিয়ে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

 

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

বুয়েটে রাজনীতি নিষিদ্ধ

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের মৃত্যুর পর কয়েকদিন ধরে চলা ছাত্র আন্দোলনের মুখে বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করা হয়েছে। পাশাপাশি আবরার হত্যা মামলায় এজহারভুক্ত ১৯ আসামিকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। আম শুক্রবার বুয়েট অডিটরিয়ামে ফাহাদ স্মরণে এক মিনিট... আরও পড়ুন

বাংলাদেশ প্রকৌশল

হলগেটে আবরারের লাশ সারারাত, খুনিদের সঙ্গে রাতভর পাহারায় ছিল দুই শিক্ষক

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে হত্যার পর খুনিরা তাকে হল গেটের সামনে রেখে দেয়। আর হল গেটেই খুনিদের সাথে আলাপচারিতায় ব্যস্ত ছিলেন হল প্রভোস্ট জাফর ইকবাল খান এবং ছাত্রকল্যাণের পরিচালক মিজানুর রহমান। আবরার ফাহাদের মৃত্যুর পর সর্বশেষ... আরও পড়ুন

বাংলাদেশ প্রকৌশল

যেভাবেই হোক, মামলা চালিয়ে যাবো: আবরারের বাবা

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যায়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের মৃত্যু শোকে পাথর তার বাবা বরকতুল্লাহ জানিয়েছেন, জীবনের যত ঝুঁকি আসুক আমি ছেলে হত্যার মামলা চালিয়ে যাব। আজ বুধবার কুষ্টিয়া কুমারখালী উপজেলার কয়া ইউনিয়নের রায়ডাঙ্গা গ্রামে নিজের বাসভবনে এসব কথা জানান তিনি। আবরারের... আরও পড়ুন

বাংলাদেশ প্রকৌশল

ফাহাদ হত্যায় জড়িতদের শাস্তি হবেই: প্রধানমন্ত্রী

  বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে নৃশংসভাবে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যত রকম শাস্তি আছে সব (তাদের) দেওয়া হবে। কোনো দল দেখা হবে না। আজ বুধবার রাজধানীতে গণভবনে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র সফর পরবর্তী সংবাদ... আরও পড়ুন