চিকিৎসকের হরতাল ডাকা অন্যায়-হাই কোর্ট

সোমবার, ৯ জুলাই, ২০১৮ ০৮:১৫:৫৬ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  

রিডার::ঢাকা

মানুষ বিপদে পড়লে তিন পেশার লোকের কাছে যায় উল্লেখ করে সর্বোচ্চ আদালত বলেছেন, পুলিশ, আইনজীবী এবং ডাক্তার-এই তিনটি পেশার পেশাদারিত্ব যদি কিছু দূর্বৃত্তের কারণে ধ্বংস হয়, তবে মানুষ বিপদে পড়বে।

চুয়াডাঙ্গায় চক্ষু শিবিরে চিকিৎসা নিতে গিয়ে চোখ হারানো ২০ জনের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিষয়ে জারি করা রুলের শুনানিকালে আজ সোমবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি) ও চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন স্বশীরে হাজির হলে হাইকোর্ট এই মন্তব্য করেন।

সম্প্রতি চট্টগ্রামের প্রাইভেট হাসপাতাল মালিকদের ধর্মঘটের প্রসঙ্গ টেনে এসময় আদালত আরও বলেন, ‘মানুষ মাত্রই ভুল হয়। আমাদেরও ভুল হয়। আমাদের ভুল সংশোধনের জন্য সর্বোচ্চ আদালত আছে। কিন্তু ডাক্তাররা ভুল করলে এবং তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হলে তার প্রতিবাদ হিসেবে হরতাল ডাকা অনৈতিক।’

আদালত বলেন — মেয়েটাকে তো ফিরিয়ে আনা যাবে না। ডাক্তাররা দেবতা নন। আমাদের ভুল হবে। ভুলটা অন্যায় নয়। কিন্তু ভুলটা জাস্টিফাই (যথাযথ) করার জন্য যদি হরতাল (ধর্মঘট) ডাকা হয় তবে তা অন্যায়।

আদালত আরও বলেন, দেশে অনেক সনামধন্য চিকিৎসক এবং ভালো মানের চিকিৎসা সেবার সুযোগ থাকা সত্ত্বেও কতিপয় ভুল চিকিৎসার ভয়ে রোগীরা পার্শ্ববর্তী দেশে চলে যাচ্ছে। এতে দেশীয় মুদ্রা বিদেশে চলে যাচ্ছে। তাই আদালত এ ধরণের পরিস্থিতি কমিয়ে আনার জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজি প্রফেসর ডা. আবুল কালাম আজাদকে নির্দেশনা দেন।

গত ২৯ মার্চ দৈনিক সমকালে প্রকাশিত ‘চক্ষু শিবিরে গিয়ে চোখ হারালেন ২০ জন!’ শিরোনামে প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে সুপ্রিমকোর্টের আইজীবী অমিত দাসগুপ্ত একটি রিট করেন।

গত ১ এপ্রিল ওই রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট চোখ হারানো ২০ জনকে এক কোটি টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে রুল জারি করেন।

গত ৩ জুলাই এই রিটের শুনানি শুরু হয়। শুনানিকালে আদালত স্বাস্থ্য অধিদফতরের ডিজি ও চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জনকে তলব করেন।

গতকাল তারা হাজির হলে শুনানির শুরুতে আদালতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজি ও চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন ডা. মো. খাইরুল আলম ক্ষতিপূরণের রুলের বিষয়ে তাদের লিখিত জবাব দাখিলে সময় আবেদন করেন।

তখন আদালত বলেন, লিখিত জবাব দাখিলের জন্য সময় পাবেন। যেহেতু দুইজন আছেন। তাই আপনাদের ব্যাক্তিগত ভাবে শুনবো।

এরপর আদালত সিভিল সার্জনকে উদ্দেশ্য করে বলেন, চুয়াডাঙ্গার ওই চক্ষু শিবির করার আগে আপনার অনুমতি নেওয়া হয়েছিলো কিনা? জবাবে তিনি বলেন, না অনুমতি নেয়নি।

এরপর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের (ডিজি) বক্তব্য শুনতে চান আদালত। শুরুতে একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত দেখিয়ে আদালত বলেন, চট্টগ্রামে যা হয়েছে সেটি দুঃখজনক।

আজকের মামলার সঙ্গে এটি সম্পর্কিত নয়। কিন্তু যেহেতু আপনি (স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক) আছেন তাই বলছি। এরপর আদালতের বিভিন্ন মন্তব্যের পর স্বাস্থ্য অধিদফতরের ডিজি আদালতকে বলেন, আমরা মহামান্য আদালতের সঙ্গে একমত। আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছি। চট্টগ্রামে ইতিমধ্যে ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে।

চুয়াডাঙ্গায় চিকিৎসা নিতে আসা চোখ হারানো ২০ জনের ব্যাপারে ডিজি আবুল কালাম আজাদ আদালতকে বলেন, এ ঘটনায় দুটি তদন্ত কমিটি করেছি।

তারা ইতিমধ্যে প্রতিবেদন তৈরী করেছেন। আমরা পর্যালোচনা করছি। ইমপ্যাক্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নিজ উদ্যোগে ওষুধের নমুনা আইসিডিডিআরবি’তে পাঠায়।

তাদের রিপোর্ট অনুযায়ী ওই ঔষুধে ব্যাকটেরিয়ার নমুনা পাওয়া গেছে। কিন্তু আমাদের প্রতিবেদনে ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। আমরা দুটো রিপোর্টই পর্যালোচনা করে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটনের চেষ্টা করছি।

পরে আদালত আগামী ১৬ জুলাই এ মামলায় জারি করা রুলের পরবর্তী শুনানির দিন নির্ধারণ করেন। এবং প্রফেসর ডা. আবুল কালাম আজাদকে উদ্দেশ্য করে বলেন, লিখিত জবাবে যেন ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটিত হয়। যাতে করে, ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণ প্রদান করা যায়।

এই বলে আদালত স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জনকে ব্যাক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দেন।

প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী চুয়াডাঙ্গার ইমপ্যাক্ট মাসুদুল হক মেমোরিয়াল কমুনিটি হেল্থ সেন্টারে তিন দিনের চক্ষু শিবিরের দ্বিতীয় দিন ৫ মার্চ ২৪ জন নারী-পুরুষের চোখের ছানি অপারেশন করা হয়। ৫ মার্চ অপারেশনের পর ৬ মার্চ তাদের প্রত্যেককেই হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হয়।

বাড়ি ফিরে ওই দিনই কারও বিকেলে, কারও সন্ধ্যায়, কারও বা রাত থেকে চোখে জ্বালা-যন্ত্রণা ও পানি ঝরতে শুরু করে। পরে ঢাকায় নিয়ে ১৯ জনের একটি করে চোখ তুলে ফেলতে হয়। এ ছাড়া হায়াতুন (৬০) নামে এক নারীর অপারেশন করা বাম চোখের অবস্থাও ভালো নয়।’

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।