খালাশ পেলেও খালেদা নির্বাচনে অংশ নিতে পারবে না: অ্যাটর্নি জেনারেল

রিডার:: ফরিদ হোসেন

মঙ্গলবার, ২৭ নভেম্বর, ২০১৮ ০২:৫৯:৩৭ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
মন্তব্য করেছেন অ্যাটর্নি

বেগম খালেদা জিয়া

দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত বেগম খালেদা জিয়া আপিলে খালাশ পেলেও নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না বলে মন্তব্য করেছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। নির্বাচনে অংশ নিতে হলে খালেদা জিয়াকে মুক্তির পরও ৫ বছর অপেক্ষা করতে হবে।

আজ মঙ্গলবার নিজ কার্যলয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মাহবুবে আলম বলেন, গতকাল সোমবার অ্যাডভোকেট ফখরুর ইসলাম এবং ওয়াদুদ ভূঁইয়া, মশিউর রহমান, এমডি আব্দুল ওয়াহ্হাব, ডা. জাহিদ হোসেন একটি আবেদন করেছিলেন এই বলে যে- তারা দুর্নীতি দমন কমিশনের মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে জামিনে আছেন কিন্তু তাদের দণ্ড স্থগিত না করা হলে তারা সামনের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারছেননা। এই বলে তারা দণ্ড স্থগিত চেয়ে আবেদন করেছিলেন।’

আদালতে আমি (শুনানিতে) বলেছিলাম- ফৌজদারী আদালত বিশেষ করে ফৌজদারী আপিল আদালত অবশ্যই তাদের সাজা (সেনটেন্স) স্থগিত করতে পারেন। কিন্তু কনভিকশন বা তাকে যে দোষী সাব্যস্থ করা হয়েছে সেটির স্থগিত নেই।

বিশেষ করে সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদের ২(ঘ) উল্লেখ করে বলেছিলাম, সেই সমস্ত ব্যাক্তিরা জাতীয় সংসদের নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারবেনা বা সংসদ সদস্য হতে পারবেনা, যদি তিনি নৈতিক স্খলন জনিত কারণে অন্যুন ২ বছরের জন্য সাজাপ্রাপ্ত হন এবং মুক্তি লাভের পর ৫ বছর সময় অতিবাহিত না হয়।

তিনি বলেন, যারা দরখাস্ত করেছিলেন তারা সবাই দণ্ডপ্রাপ্ত। এরা তাদের দণ্ড থেকে মুক্তি লাভ করেনি। এবং তাদের ৫ বছর সময় অতিবাহিত হয়নি। এমতাবস্থায় যদি তাদের দণ্ড স্তগিত করে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে দেওয়া হয় তা হবে আমাদের সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদের পরিপন্থী। কাজেই আদালত আমাদের আবেদন গ্রহণ করে তাদের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন। ফলে দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যাক্তিদের আর নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করার কোন অবকাশ থাকবেনা বলে আমি মনে করি।

খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রেও একই বিধান প্রযোজ্য হজবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, অবশ্যই। এটি সাংবিধানিক বিধিবিধান। যে কেউ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন কিংবা সাংসদ হিসেবে সংসদে থাকতে পারবেনা যদি কিনা ওই ব্যাক্তি অন্যু্ন্য ২ বছরের জন্য সাজাপ্রাপ্ত হন এবং মুক্তি লাভের পর ৫ বছর সময় অতিবাহিত না হয়।

এখানে শর্ত হলো ২টি । তা হলো- তিনি যদি দণ্ডিত হন তাহলে পারবেননা। আর ইতিমধ্যে তিনি যদি তার দণ্ড বা সাজা থেকে মুক্তি লাভ করেন তাহলে তার সাজা বাতিলের তারিখ থেকে ৫ বছর তিনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেননা। কাজেই খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে দুইটি প্রতিবন্ধকতাই রয়েছে। কোন আদালত তার রায় দিয়ে এই সাংবাধানিক প্রতিবন্ধকতাকে উপেক্ষা করতে পারেনা।

 

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম

আরেক প্রশ্নের জবাবে মাহবুবে আলম বলেন, আমাদের আপিল বিভাগ কিংবা হাইকোর্ট বিভাগ সংবিধান দ্বারা তৈরী তাদেরকে সংবিধান দিয়ে চলতে হবে।

কাজেই কোন আদালত এটাকে অগ্রাহ্য করতে পারেনা।

এ বিষয়ের বিরুদ্ধে কেউ আপিল করলেও আমাদের একই বক্তব্য থাকবে। তারা সংবিধান অগ্রাহ্য করতে পারেনা বলে আদালতকে জানানো হবে বলেও মন্তব্য করেন মাহবুবে আলম।

আপিল বিভাগ এই দণ্ড স্থগিত করতে পারে কিনা জানতে চাইলে মাহবুবে আলম বলেন, আপিল বিভাগ কি করবে সেটা আমি বলতে পারিনা। আমার সাবমিশন হলো সংবিধানের ওপরে।

হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ, ড. মহিউদ্দিন খান আলমগীর ও মোফাজ্জেল হোসেন চৌধুরী মায়া নিম্ন আদালতের দণ্ড স্থগিত করে নির্বাচন করে সংসদে গিয়েছেন এবং মন্ত্রী হয়েছেন সেক্ষেত্রে অন্যদের ক্ষেত্রে এই নজির প্রযোজ্য না হওয়ার কারণ বিষয়ে তিনি বলেন, এরশাদের ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টের রায় আছে। তার সাংসদ পদ খারিজ হয়ে গিয়েছিলো। আর ড. মহিউদ্দিন খান আলমগীর ও মোফাজ্জেল হোসেন চৌধুরী মায়ার মামলায় একই ধরণের সাবমিশন রাখা হয়েছিলো কিনা তা আমি বলতে পারবোনা। এর আগে কেন এভাবে বলা (শুনানি) হয়নি তা আমি জানিনা।

প্রসঙ্গত, এর আগে মঙ্গলবার সকালে বিএনপির ৫ নেতা- সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উলাহ আমান, বিএনপি সমর্থিত চিকিৎসকদের নেতা ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি ওয়াদুদ ভূঁইয়া, ঝিনাইদহ-২ এর সাবেক সাংসদ ও ঝিনাইদহ বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব মো. মশিউর রহমান এবং ঝিনাইদহ-১ আসনের সাবেক সাংসদ ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. আব্দুল ওহাবের দণ্ড স্থগিতের আবেদন খারিজ করে দেন হাইকোর্ট।

কেননা, বাংলাদেশ সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে- (১) কোন ব্যক্তি বাংলাদেশের নাগরিক হলে এবং তার বয়স পঁচিশ বৎসর পূর্ণ হলে এই অনুচ্ছেদের (২) দফায় বর্ণিত বিধান-সাপেক্ষে তিনি সংসদের সদস্য নির্বাচিত হওয়ার এবং সংসদ-সদস্য থাকবার যোগ্য হবেন।

(২) কোন ব্যক্তি সংসদের সদস্য নির্বাচিত হওয়ার এবং সংসদ-সদস্য থাকবার যোগ্য হবেন না, যদি (ক) কোন উপযুক্ত আদালত তাকে অপ্রকৃতিস্থ বলে ঘোষণা করেন।

(খ) তিনি দেউলিয়া ঘোষিত হওয়ার পর দায় হতে অব্যাহতি লাভ না করে থাকেন।

(গ) তিনি কোন বিদেশী রাষ্ট্রের নাগরিকত্ব অর্জন করেন কিংবা কোন বিদেশী রাষ্ট্রের প্রতি আনুগত্য ঘোষণা বা স্বীকার করেন; (ঘ) তিনি নৈতিক স্খলনজনিত কোন ফৌজদারী অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়ে অনূ্ন্য দুই বৎসরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন এবং তার মুক্তিলাভের পর পাঁচ বৎসরকাল অতিবাহিত না হয়ে থাকে।

(ঙ) তিনি ১৯৭২ সালের বাংলাদেশ যোগসাজশকারী (বিশেষ ট্রাইব্যুনাল) আদেশের অধীন যে কোন অপরাধের জন্য দণ্ডিত হয়ে থাকেন।

(চ) আইনের দ্বারা পদাধিকারীকে অযোগ্য ঘোষণা করছে না, এমন পদ ব্যতীত তিনি প্রজাতন্ত্রের কর্মে কোন লাভজনক পদে অধিষ্ঠিত থাকেন

অথবা

(ছ) তিনি কোন আইনের দ্বারা বা অধীন অনুরূপ নির্বাচনের জন্য অযোগ্য হন।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সিসি ক্যামেরা অনিয়ম রুখছে না:প্রধান বিচারপতি

  দেশের সর্বোচ্চ আদালতের এফিডেভিট শাখার অনিয়ম রুখতে না পেরে হতাশা প্রকাশ করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। আজ সোমবার সকালে এক মামলার শুনানিকালে এমন মন্তব্য করেছেন তিনি। পাঁচ সদস্যের আপিল বেঞ্চে প্রধান বিচারপতি বলেন হলফনামা শাখায় সিসি ক্যামেরা বসানোর... আরও পড়ুন

বিএনপির চেয়ারপারসন

খালেদার আইনজীবীদের অভিযোগের যুক্তি টিকবে না

বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার আদালত স্থানান্তর নিয়ে তাঁর আইনজীবীরা অভিযোগ তুলেছেন, কেরানীগঞ্জের আদালত ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার বাইরে, এ যুক্তি মামলায় টিকবে না বলে মন্তব্য করেছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আজ মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়ে মাহবুবে আলম এই... আরও পড়ুন

মামলার ফাইল বেঞ্চে

আদেশ স্পষ্ট করতে খালেদার ফাইল ফের হাই কোর্টে

দুর্নীতি মামলায় দন্ডিত বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্রের বৈধতা প্রশ্নে হাই কোর্টের আদেশটি স্পষ্ট করতে মামলার ফাইল বেঞ্চে ফেরত পাঠিয়েছেন প্রধান বিচারপতি। সুপ্রিম কোর্টের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, হাই কোর্ট বেঞ্চের দুই বিচারকের মতামত স্পষ্টভাবে ফাইলে আসেনি। এ কারণে প্রধান বিচারপতি... আরও পড়ুন

জিয়ার দায়ের করা রিটের

খালেদার ভোট সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার

বেগম খালেদা জিয়ার তিন আসনে প্রার্থীতা বাতিল করে ইসির নেওয়া সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিটের শুনানি আজ সোমবার শেষ হয়েছে। বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি সৈয়দ ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ শুনানি গ্রহণ শেষে আগামীকাল মঙ্গলবার রায়ের জন্য... আরও পড়ুন