কেমন আছে নিহত জঙ্গিদের পরিবারগুলো

রিডার::ঢাকা

রবিবার, ১ জুলাই, ২০১৮ ০৯:২০:৩৩ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  

যারা ধর্মের নামে জঙ্গি হামলার জন্য জীবনকে উৎসর্গ করে, তারা কী কখনও ভেবে দেখেছে হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলাকারীদের পরিবারগুলো কিভাবে বেঁচে আছে? সেই পরিবারগুলো হয়তো বেঁচে আছে ঠিকই, কিন্তু তাদের সন্তান বা ভাইরা তাদের রেখে গেছেন ঘৃণার সাগরে।

অথচ এই মানষগুলোর কিস্তু নিহতদের কর্মকান্ডের সঙ্গে কোন সম্পৃক্ততা নেই!

গত ১ জুলাইয়ের সেই হামলায় নিহত একজন ফারহাজ।তাঁকে হারিয়েও তাঁর পরিবারে কাছে থেকে গেছে গৌরবের আনন্দ। পরিবারের শেখানো নৈতিকতা আর মানবতাকে হারায়নি তাদের সন্তান।মরে যেয়েও তিনি বন্ধুত্বকে অমর করে গেছেন।

আর জঙ্গি পরিবারগুলোর বাবা-মা ভাবছেন কোন শিক্ষাটা ভুল ছিল!কোন জায়গাটায় ত্রুটি রেখেছিলেন তারা, যার জন্য এতো বড় মাশুল আজীবন তাদের দিতে হবে!

উৎসবের অনুষ্ঠানগুরো আজকাল এড়িয়ে চলেন মীর মোবাশ্বেরে বাবা-মা। ঈদের আনন্দ গত দুই বছর আগে আজকের এই দিনে চীরতরের জন্য শেষ হয়ে গেছে। এখন তো আর বিশেষ বিশেষ পাকোয়ান তৈরী করে ছেলের সামনে দেওয়া সাধ্যও নেই তার।তাই ঈদের দিনটাও বাড়িতে শ্বশান ঘাটের মতো নিরব মাতম চলে।চোখের পানি আজও লুকিয়ে রাখেন তিনি।

হোলি আর্টিজানে যে পাঁচ জঙ্গি পুলিশ কর্মকর্তাসহ ২২ জনকে হত্যা করেছিল, তাদের একজন মীর সামেহ মোবাশ্বের। পরিবারটির ঘনিষ্ঠ একজন বলছিলেন, হোলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলা পরিবারটির জীবনকে এক নিমিষে পাল্টে দিয়েছে।একদিকে সন্তান হারিয়েছেন ঠিকই, কিন্তু শোক করতে পারেননি । নিজের দেশের সঙ্গে, মানবতার সঙ্গে সন্তানের এমন দুষ্কর্ম তাদেরকে দুমড়ে-মুড়চে দিয়েছে।

সেই কষ্ট না যায় বলা, না সহা।আত্মীয়-স্বজন তো বটেই প্রতিবেশীদের সঙ্গে স্বাভাবিকভাবে কথা বলতে তারা অস্বস্তিবোধ করেন।পাছে ছেলে নিয়ে কোন দুকথা না শুনতে হয়।

১৮ বছরের কিশোর সামেহর জঙ্গিবাদে জড়ানোর কোন কারণ ছিল না। ছেলেটির মা রাজধানীর সরকারি একটি কলেজের অর্থনীতির অধ্যাপক। বাবা বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা। বড় ভাই কানাডায় একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র। নিজের একটা গানের দল আছে। সামেহ পড়ালেখা, বুদ্ধি-বিবেচনায় বেশ পিছিয়ে ছিল। সহপাঠীরা এসব নিয়ে ঠাট্টা-মশকরা করতো।

সামেহর মন বিদ্রোহী হয়ে উঠত। বন্ধুবান্ধব, আড্ডা কোনো কিছুতেই সে যুক্ত হতে পারত না। বাবা-মা সান্ত্বনা দিতেন।

এই সামেহ চার মাস নিখোঁজ ছিল। পুলিশ, র‌্যাব, গুরুত্বপূর্ণ গোয়েন্দা সংস্থা কেউ খোঁজ দিতে পারেনি তার। হঠাৎ ২০১৬ সালের ২ জুলাই সকালে পত্রিকা খুলে সামেহর বাবা-মা জানলেন, ছেলে হোলি আর্টিজানে যৌথ বাহিনীর অভিযানে নিহত হয়েছে।এর থেকে জীবনে বড় ধাক্কা কী বা হতে পারে।যদি স্বাভাবিক মৃত্যু হতো, কিংবা অসুস্থতা কিংবা অন্য কিছু…….।

ছেলেটা শুধু মানবতাকে হত্যা করেনি।আজীবন শাস্তি দিয়ে গেছে গোটা পরিবারকে।

এরপর থেকে তাঁরা আর কোনো সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশ নেন না। সামেহর বড় ভাই দেশে আসতে পারেন না। এ অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে সামেহর বাবা-মা মৃত্যুর দিন গোনেন।

বাকি পরিবারগুলোও পালিয়ে বেড়ানো জীবনে আটকে আছে । হোলি আর্টিজানে হামলাকারী রোহান ইমতিয়াজের মা স্কলাসটিকা স্কুলের গণিত শিক্ষক ছিলেন। চাকরি ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে। বাবা ইমতিয়াজ খান ক্রীড়া সংগঠক, রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত, ব্যবসায়-বানিজ্যও করেন। ছেলের অপকর্মের কারণে দলে নিজের পদটিও হারিয়েছেন তিনি।লালমাটিয়ার এতোদিনের বাড়ি ছেড়ে লোকচক্ষুর আড়ালে থাকতে চান।

 

হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলার পর সেনা অভিযানে নিহত পাঁচ জঙ্গি

 

রোহান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছিল। রাজনীতিতে জড়িয়ে যদি লেখাপড়া ছেড়ে দেয়, যদি সেশনজটে আটকা পড়ে, এমন হাজারো শঙ্কা থেকে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করিয়েছিলেন বাবা-মা। সেই ছেলে শেষ পর্যন্ত জঙ্গি পরিচয়ে মারা পড়ল!

ইমতিয়াজ খান বা তাঁর স্ত্রী সংবাদমাধ্যমে এই প্রসঙ্গটি নিয়ে আর কথা বলতে চান না।

কী বলবেন।ছেলেটা যে চীরতরে তাদের মুখটি বন্ধ করে দিয়েছে।

নিবরাস ইসলামের বাবা-মাও এখন সামাজিক অনুষ্ঠানগুলো এড়িয়ে চলেন। নিবরাসের বাবা বলছিলেন, ‘আনন্দ কিংবা হাসি, এই দুটো জিনিস আমরা তো ভুলে গেছি।সন্তানের পরিচয়ে বাবা-মা বাঁচতে যায়।আমাদের সন্তান আমারা জীবিত থাকতে যেন আমাদের মেরে ফেললো।এ কতো বড় আঘাত, তা কাউকে বোঝানো যাবে না।’

বগুড়ার খায়রুল ইসলাম ওরফে পায়েলের পরিবার যেন আর একটু বেশি বিপদে পড়ে গেছে।আজ কোথাও গেলে লোকে খায়রুলের মাকে বলে জঙ্গির মা। বড় মেয়ের সংসার ভাঙ্গার পথে।কারণ তিনি জঙ্গির বোন।

একঘরে হয়ে থাকা জঙ্গিদের পরিবারগুলোকে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ক্রাইম জঙ্গিবাদবিরোধী প্রচার কার্যক্রমে যুক্ত করতে চাইছে। উদ্দেশ্য যারা জঙ্গিবাদে জড়িয়েছে, তাদের বোঝানো জঙ্গিবাদ পরিবারকে শেষ করে দেয়। যারা জঙ্গি হামলা চালিয়ে মরতে চান, তারা যেন স্বার্থপরতা ভুলে একবার বাবা-মা আর ভাই-বোনদের কথা ভাবেন।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।