করোনা নিয়ে জাতিসংঘেও চীন-যুক্তরাষ্ট্রের উত্তেজনা

রিডার::নিউ ইয়র্ক

বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০২:০৬:৪৭ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
উহানে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ

গেলো বছর চীনের উহানে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ যখন দেয়া দিয়েছিল তখন থেকেই সেটিকে ‘চীনা ভাইরাস’ বলে অভিহিত করছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন বিজ্ঞানিরা বলছিলেন, চীনা গবেষণাগারে করোনার জন্ম।

শুরু থেকেই সেইসব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন চীনারা। তবে সেই চীনাদের কল্যাণে সেই করোনা ভাইরাস এখন বৈশ্বয়িক মহামারীতে পরিণত হয়েছে।

এই বৈশ্বিক মহামারীর জন্য চীনের ‘জবাবদিহি’ আগেও চেয়েছেন ট্রাম্প। গতকাল মঙ্গলবার জাতিসংঘের সাধারণ পরিষতের অধিবেসনে সেই অভিযোগ তুলতে ভোলেননি ট্রাম্প।

পক্ষান্তরে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং তার ভাষণে বলেছেন, অন্য কোনো দেশের সঙ্গে স্নায়ু যুদ্ধে যাওয়ার কোনো ইচ্ছা তার দেশের নেই।

করোনাভাইরাসসহ বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে এই দুই বিশ্বশক্তির মধ্যে বিরোধ চলছে।

মহামারীর মধ্যে এ বছর নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশন মূলত ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বিশ্ব নেতারা আগে রেকর্ড করা বক্তব্য সরবরাহ করছেন।

প্রতিটি সদস্য দেশের মাত্র একজন করে প্রতিনিধি অধিবেশনে তার দেশের প্রতিনিধিত্ব করায় কোনো একটি দেশের সঙ্গে অন্য একটি দেশের বাকযুদ্ধের সীমিত সুযোগ রয়েছে।

তবে বরাবরের মতো অধিবেশনে ভাষণে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজের অর্জনগুলো জোরের সঙ্গে তুলে ধরার পাশাপাশি তার প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেছেন।

তিনি বলেছেন — আমাদের অবশ্যই সেই জাতিকে জবাবদিহি করতে হবে, যারা বিশ্বে এই মহামারী ছড়িয়ে দিয়েছে- চীন।

চীনের বিরুদ্ধে এই অবস্থানের পক্ষে যুক্তি দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বলেন –ভাইরাসের শুরুর দিকের দিনগুলোতে চীন দেশের মধ্যে ভ্রমণ বন্ধ করে দিয়েছে, অপরদিকে চীন ত্যাগ এবং বিশ্বকে সংক্রমিত করতে ফ্লাইট চালু রেখেছে।

এমনকি চীন যখন অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বাতিল এবং নাগরিকদের ঘরে আটকে দিয়েছে তখনও তারা তাদের দেশে আমার ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার সমালোচনা করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচন সামনে রেখে করোনাভাইরাস মোকাবেলা নিয়ে ট্রাম্প নিজেও পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যাচ্ছেন। এর মধ্যে আগেও বেশ কয়েকবার তিনি বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে ভাইরাস সম্পর্কিত তথ্য গোপনের অভিযোগ তুলেছেন। চীন চাইলে এই রোগ ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে পারত বলে অভিযোগ করছেন তিনি।যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের পরে বক্তব্য দিতে যাওয়া চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ‘সভ্যতার সংঘাতের’ ঝুঁকির বিষয়ে সতর্ক করেছেন।

আলোচনা ও সমঝোতার ভিত্তিতে অন্যদের সঙ্গে মতভিন্নতা ও বিতর্কের অবসানের চেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার কথা বলেছেন তিনি।

গতকাল প্রকাশিত হতে যাওয়া চীনের প্রেসিডেন্টের ভাষণের কিছু অংশ এরইমধ্যে বাইরে এসেছে, যাতে তাকে যুক্তরাষ্ট্রকে এক চোট নিতে দেখা গেছে।

কোনো দেশের অধিকার নেই বৈশ্বিক বিষয়াবলীকে প্রভাবিত করা, অন্যদের ভাগ্য নিয়ন্ত্রণ বা শুধু নিজের উন্নয়নের জন্য সুবিধা নেওয়ার।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

ছি! কীভাবে এই দৃশ্যটি আমি দেখি! ফোনে ফোনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া সেই নির্মম... আরও পড়ুন

ফোনে ফোনে সামাজিক

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভাইস-প্রেসিডেন্ট বিতর্কের সময় কোথা থেকে এক বেরসিক মাছি উড়ে এসে জুড়ে বসলো,... আরও পড়ুন

হাওরের রুপ উপভোগ করতে কিশোরগঞ্জ জেলার ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক দেখতে যেতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ... আরও পড়ুন

ইটনা-মিঠামইন-অষ্টগ্রাম সড়ক

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।