করোভাইরাসের প্রতিষেধক বাজারে কবে আসবে?

রিডার::লিনা মাতনকার

মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ, ২০২০ ০৯:১৩:৪৫ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  

কভিড-১৯ ভাইরাসের মহামারী আজ মঙ্গলবার পর্যন্ত আট লাখ ৪৯জন আক্রান্ত হয়েছে। মারা গেছে ৩৭ হাজার ৮শ ৭৮জন। শিগগিরই এই বিপদের ঘাড়ে লাগাম টানতে না পারলে এই সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বাড়বে তো বটেই।পরিণতি আরও ভয়াবহ হতে খুব বেশি কঠিন হয়ে পড়বে না।

এখন প্রশ্ন হল কতো দ্রুত পৃথিবী থেকে নির্মূল করা যাবে এই ভয়ঙ্কর ভাইরাসকে? বিজ্ঞানী, ভাইরোলজিস্ট ও চিকিৎসকদের একাংশ এ ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত একেবারেই রয়েছেন অন্ধকারে। কারণ, তাঁদের হাতে এখনও পর্যন্ত এই ভাইরাস সম্পর্কে তেমন পর্যাপ্ত তথ্যাদি নেই।

বিজ্ঞানী ও ভাইরোলজিস্টদের একাংশ বলছেন, সমস্যা সামলে উঠতে এ বছরটা পেরিয়ে যেতে পারে। আবার তা গড়িয়ে যেতে পারে এক থেকে দেড় বছরেও। কারণ, কোনও ভাইরাসকে বুঝে উঠে কোনও সফল ওষুধ বা টিকা আবিষ্কার করতে ও বাজারে আনতে যতটা সময় লাগে, করোনা এখনও আমাদের সেই সময় বা সুযোগ কোনওটাই দেয়নি।

যদি ধরে নেওয়া যায় গত বছরের ডিসেম্বরের শেষে এই নতুন ‘থানোস’ ভাইরাসের দেখা মিলেছিল চীনের উহান শহরে। সেই হিসাবে একে চেনা-বোঝার জন্য মাত্র তিন মাস সময় মিলেছে। যা কোনও ভাইরাসকেই বুঝে ওঠার পক্ষে পর্যাপ্ত নয়। করোনার ক্ষেত্রে সমস্যাটা আরও বেশি। কারণ, এই ভাইরাস খুব অল্প সময়ের মধ্যে খুব দ্রুত নিজেদের জিনসজ্জা ও আচার, আচরণ ইতিমধ্যেই বহু বার বেমালুম বদলে ফেলেছে। ফলে, তাদের বুঝে ওঠার কাজটা আরও কঠিন হয়ে গিয়েছে।

দ্য গার্ডিয়ান বলছে, এই মুহূর্তে বিশ্বের প্রায় ৩৫টির প্রতিষ্ঠান কোভিড-১৯ টিকা তৈরির চেষ্টা জোরেশোরে চালিয়ে যাচ্ছে। এর মধ্যে এক ধাপ পেরিয়ে চারটি প্রতিষ্ঠান প্রাণীদেহে এই প্রতিষেধক প্রয়োগের নিরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে।

মানুষের উপর প্রথম এই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চালিয়েছে বোস্টনের বায়োটেকনোলোজি কোম্পানি মডার্না থেরাপিউটিকস।

গবেষণার এই ত্বরিত গতির জন্য চীনের একটি ধন্যবাদ প্রাপ্য বলে জানাচ্ছে গার্ডিয়ান। কারণ তারাই শুরুতে সার্স-সিওভি-২ ভাইরাসটির জিনোমের নমুনা নিয়ে তা জানিয়েছিল সবাইকে।কোভিড-১৯ প্রতিষেধক তৈরিতে অর্থ জোগান দিচ্ছে অসলোভিত্তিক প্রতিষ্ঠান কোয়ালিশন ফর এপিডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশনস (সেপি)।

প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী রিচার্ডের বরাত দিয়ে গার্ডিয়ান বলছে — আর সব করোনাভাইরাসে টিকা কীভাবে তৈরি করা যায়, এই চিন্তা করেই দ্রুতগতিতে বিনিয়োগ করা হয়েছে।

২০০২ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত চীনে সার্স ও ২০১২ সালে সৌদি আরবে মার্সের প্রাদুর্ভাবের কারণও এক ধরনের করোনাভাইরাসই।

সার্স ও মার্সের পর প্রতিষেধক তৈরির কাজ শুরু হলেও রোগ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসতেই এই গবেষণা থেমে যায় বলে জানাচ্ছে গার্ডিয়ান।

মেরিল্যান্ডভিত্তিক প্রতিষ্ঠান নোভাভ্যাক্স বলছে, ওই সময়ে তৈরি টিকাগুলো এখন মানুষের শরীরে পরীক্ষার জন্য প্রয়োগ করা সম্ভব।
মার্স প্রাদুর্ভাবের সময় তৈরি হওয়া প্রতিষেধক থেকেই নতুন করোনাভাইরাসের টিকা বানানোর কাজটি এগিয়ে নিয়েছে মডার্না থেরাপিউটিকসও।

বিজ্ঞানীরা সার্স ভাইরাসটির সঙ্গে নভেল করোনাভাইরাসের জিনোমের গঠনের ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ মিল খুঁজে পেয়েছেন। তাই নতুন এই ভাইরাসটির আরেকটি নাম দেওয়া হয়েছে সার্স-সিওভি-২।

একটি প্রোটিনের তৈরি গোলাকার ক্যাপসুলের ভেতর থাকে ভাইরাসটির রাইবোনিউক্লিক এসিড বা আরএনএ। আর বাইরের আবরণ ঘিরে থাকে প্রোটিন যুক্ত কাঁটা।

মানুষের ফুসফুসে ঢুকে গেলে শরীরের কোষের সঙ্গে এই কাঁটা ব্যবহার করেই ভাইরাসটি নিজেকে সংযুক্ত করে। তারপর মানুষের শরীরের কোষের বিভাজনের কৌশল জেনে নিতে পারে ভাইরাসটি। তারপর ওই পদ্ধতিতে নিজের একাধিক অনুলিপি তৈরি করতে থাকে। তবে তার আগে মানুষের শরীরের ওই কোষ ধ্বংস করে দেয় এই ভাইরাস।

ভারতীয় ভাইরাস বিশেষজ্ঞ অমিতাভ নন্দী বলছেন — এই সঙ্কটের জন্ম হওয়ার পর দেখা গিয়েছে, যদি ১০০ জন রোগীর ক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণের প্রাথমিক উপসর্গগুলি পাওয়া গিয়ে থাকে, তা হলে বাড়তি আরও অন্তত ১২০/১৩০ জন এমন মানুষ আছেন, যাঁদের মধ্যে জীবাণু থাকা সত্ত্বেও রোগের উপসর্গ প্রকাশ পাবে না।

এর মধ্যে অল্প কিছু সংখ্যক পরবর্তী দুই থেকে তিন সপ্তাহের মধ্যে কোভিড ১৯-এর রোগী হয়ে পড়বেন। এই দ্বিতীয় দফার রোগী এবং যাঁরা এখনও উপসর্গহীন হয়ে আছেন, তাঁরা সবাই মিলে পরবর্তী সময়ে সমাজে আরও বহু মানুষের মধ্যে জীবাণু ছড়াতে সাহায্য় করবেন।

শুধু তাই নয়, কোনও রোগীর দেহে থাকা করোনাভাইরাসের এই ইনকিউবেশন পর্ব ঠিক কত দিনের হবে, সেটাও নিখুঁতভাবে বলা দুরহ। সেটা এক রোগী থেকে অন্য রোগীকে বদলে যেতে পারে।

মোহালির ‘ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্স এডুকেশন অ্যান্ড রিসার্চের (আইসার মোহালি)’ মলিকিউলার বায়োলজির অধ্যাপক ইন্দ্রনীল বন্দ্যোপাধ্যায় বলছেন — সেই রোগী কোন দেশে কী সামাজিক ও অর্থনৈতিক অবস্থায় রয়েছেন, সেই দেশের জনসংখ্যার ঘনত্ব কতটা, গড় তাপমাত্রা কতটা, কেমন সেই দেশের জলবায়ু, তার উপর নির্ভর করেও বদলে যেতে পারে বিভিন্ন রোগীর দেহে থাকা করোনাভাইরাসের ইনকিউবেশনের মেয়াদ।

কারও ক্ষেত্রে সেই মেয়াদ ২ থেকে ৪ দিন হতে পারে। কারও ক্ষেত্রে হতে পারে ৭ বা ১৫ দিন। আবার কারও কারও ক্ষেত্রে তা এক মাসও হতে পারে। তার মানে, কারও কারও ক্ষেত্রে করোনা সংক্রমণের প্রাথমিক উপসর্গগুলি এক মাস পরেও দেখা যেতে পারে।’

 

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

করোনায় ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু চারজনের, আক্রান্ত ২১৯জন

কভিড-১৯ ভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেটের ওসমানী মেডিক্যাল হাসপাতালের  চিকিৎসকসহ আরও চারজনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে আরও ২১৯জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় অর্ধশত লোকের মৃত্যু হল। ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৩১ জনে। আজ বুধবার দুপুরে স্বাস্থ্য... আরও পড়ুন

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন ট্রাম্প

কভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মৃতের সংখ্যা ১২ হাজার ছাড়ালেও একবার ফের দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের রোষানলে পড়লো বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা(ডব্লিএইচও)।গেল সপ্তাহে সংস্থাটির তহবিল বন্ধ করে দেওয়ার ‘হুমকি’ গতকাল মঙ্গলবার প্রয়োগ করলেন তিনি। ট্রাম্প বলেছেন --করোনা ভাইরাসের প্রার্দুভাব মোকাবেলায় সংস্থাটি... আরও পড়ুন

সম্পূর্ণ সমাধানটির

করোনা সংক্রমণ মোকাবেলায় সেলিসের ‘হেলথ’ অ্যাপ কনসেপ্ট

রোগতত্ত্ব অনুযায়ী, কোন মহামারী সংক্রমণ ঠেকাতে একটি দেশের আনুমানিক ৬০ ভাগ মানুষকে নিরাপদ রাখাই হল হার্ড ইমিউনিটি বা পোক্ত রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা। অর্থাৎ এই পর্যায়ে রোগের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে থাকায়, জনস্বাস্থ্যের ঝুঁকিমুক্ত হয়ে পড়ে। কোভিড - ১৯ এর ক্ষেত্রে ‘হার্ড ইমিউনিটি’... আরও পড়ুন

এটা বড় ধরনের ব্যর্থতা।

দুই বিশ্ব যুদ্ধে মৃতের সংখ্যাকে হার মানাবে করোনা

গেল ডিসেম্বর মাসে চীনের উহান শহরে কভিড-১৯ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে অস্থায়ীভাবে হাসপাতাল নির্মাণের সময় লেইশেনশেন হাসপাতাল প্রধান ওয়াং শিংহুয়ান বলেছিলেন, প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ মিলে যত মানুষের মৃত্যু হয়েছে, মহামারি করোনায়  গোটা পৃথিবীতে তার তুলনায় অনেক বেশি মানুষ... আরও পড়ুন