ইভিএমেও আস্থা ফিরেনি

রিডার::ঢাকা

রবিবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০২০ ০৯:৩১:৪৩ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনও (ইভিএম) ভোটারের আস্থা ফিরেনি। নির্বাচন ব্যবস্থপনায় আস্থা ফেরাতে ইভিএম সংযোগ হলেও ভোটারের মন জয় করতে ব্যর্থ হয়েছে যন্ত্রটি। ব্যালটের চেয়ে বরং ইভিএমে ভোটারদের অনীহা দেখা গেছে বেশি। ইভিএমে ভোট শেষ হওয়ার ঘণ্টাখানেকের মধ্যে ফল প্রকাশের আশা দেখিয়েছিল নির্বাচন কমিশন।

কিন্তু এবার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ করতে সময় লেগেছে ১১ ঘন্টা। ভোটারদের অনাগ্রহে ইভিএমে উত্তর ও দক্ষিণ সিটিতে ভোট পড়েছে মাত্র ২৭ দশমিক ১৫ শতাংশ। অথচ কাগজের ব্যালটে ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত দুই সিটিতে ভোট পড়েছিলো ৪৩ শতাংশ।

মাত্র পাঁচ বছরের ব্যবধানে ১৬ শতাংশ ভোটার নির্বাচন ব্যবস্থাপনা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। ভোট পড়ার হার নিয়ে সন্তুষ্ট নয় নির্বাচন কমিশনও।

এ বিষয়ে ইসির সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর বলেছেন, ধারণা ছিল, শতকরা ৫০ শতাংশ ভোট পড়বে। কিন্তু তার চেয়ে কম পড়েছে। ভোট কাস্টিংয়ের দিক থেকে আমরা পুরোপুরি সন্তুষ্ট না। ভোটারদের আস্থাহীনতার কারণে এত কম ভোট পড়েছে কি না জানতে বলেন, ‘অনাস্থায় ভোটে যায়নি, এটা আমার কাছে মনে হয়নি। জনগণ ছুটি পেয়েছে, অনেকে ছুটি ভোগ করেছে। কেউ কেউ ফেসবুক নিয়ে ব্যস্ত ছিল।’

এছাড়াও গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএমের ছয় আসনে ভোটের হার ছিলো ৫১.৪১ শতাংশ। স্বল্প ব্যবধানে সেই ভোটাররাই এবারও কেন্দ্রে নেই। দুই সিটির ৩৯ লাখ ৯০ হাজার ৪৩০জন ভোটার ভোট দেননি। বেশিরভাগ ভোটার যন্ত্রটির সম্পর্কে অজ্ঞ।

নিজের ভোট দেয়ার পর সন্তুষ্ট হতে পারেননি তারা। ভোটার নিজে তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পেরেছেন কিনা তা অস্পষ্ট থাকে। ইভিএমে ভোটদানের স্বচ্ছতাও ভোটারদের কাছে শতভাগ নিশ্চিত নয়। ৪ হাজার কোটি টাকার এই ইভিএম ভোটারকে আকৃষ্টি করতে পারেনি।

স্থানীয় নির্বাচনে ভোটারদের ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ ভোটার কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিয়েছেন। এখন ঠিক উল্টো। বিশেষ করে ২০১৪ সালের পর থেকে ভোটারদের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে এক ধরণের অনাস্থা তৈরি হয়। ভোটাররা কেন্দ্র বিমুখ একদিনে হয়নি বলে মনে করছেন নির্বাচন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলছেন, ইভিএম ভীতি, নিজের ভোট নিজে দিতে না পারা, সরকারি দলের একক নিয়ন্ত্রণ, কেন্দ্র দখলের আশংকা, সহিংসতা, ইসির নিষ্ক্রিয়তা ইত্যাদি কারণে ভোটাররা কেন্দ্রে বিমুখ হচ্ছেন।

২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল নির্দলীয়ভাবে অনুষ্ঠিত ঢাকা উত্তরে আনিসুল হক টেবিল ঘড়ি মার্কায় পেয়েছিলেন ৪ লাখ ৬০ হাজার ১১৭ ভোট; তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির তাবিথ আউয়াল বাস মার্কায় পান ৩ লাখ ২৫ হাজার ৮০ ভোট। শতকরা ভোট পড়েছিলো ৩৭ দশমিক ৩০ শতাংশ।

সেই সময় মোট ভোটার ছিলো-২৩ লাখ ৪৪ হাজার ৯শ জন। এবার দলীয় প্রতীকের ভোটে বিজয়ী আওয়ামী লীগের মো. আতিকুল ইসলাম পেয়েছে ৪ লাখ ৪৭ হাজার ২১১ ভোট। নিকটতম বিএনপির তাবিথ আউয়াল পেয়েছেন ২ লাখ ৬৪ হাজার ১৬১ ভোট। ভোট পড়ার ২৫ দশমিক ৩০ শতাংশ।

মোট ভোটার ৩০ লাখ ১২ হাজার ৫০৯ জন। গতবারের তুলনায় এবার ১২ শতাংশ ভোটার কেন্দ্রে যাননি। আতিক শতকরা ভোট পেয়েছে ৫৯ শতাংশ আর তাবিথ ৩৫ শতাংশ। মোট ভোটারের তারা পর্যায়ক্রমে ১৫ শতাংশ এবং ৯ শতাংশ ভোট পেয়েছেন।

অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণে মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ১৮ লাখ ৭০ হাজার ৭৭৮ জন। এখানে মোহাম্মদ সাঈদ খোকন ইলিশ মাছ প্রতীকে ৫ লাখ ৩৫ হাজার ২৯৬ ভোট পেয়ে মেয়র পদে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মির্জা আব্বাস মগ প্রতীক নিয়ে ভোট পান ২ লাখ ৯৪ হাজার ২৯১টি। ভোট পড়েছিলো ৪৮ দশমিক ৪০ শতাংশ।

২৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৫৯ ভোটারের মধ্যে ইভিএমের ভোটে আওয়ামী লীগের ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস পেয়েছেন ৪ লাখ ২৪ হাজার ৫৯৫ ভোট। প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির ইশরাক হোসেন পান ২ লাখ ৩৬ হাজার ৫১২ ভোট। ভোট পড়েছে শতকরা ২৯ দশমিক শুন্য ২ শতাংশ। দক্ষিণে ১৯ দশমিক ৩৮ শতাংশ ভোটার কেন্দ্রে যাননি। তাপস শতকরা ভোট পেয়েছে ৬০ শতাংশ আর ইশরাক ৩৩ শতাংশ। মোট ভোটারের মধ্যে তারা ১৭ শতাংশ এবং ১০ শতাংশ ভোট পান।

ইভিএমে অনুষ্ঠিত রংপুর-৩ এবং চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে দেখা গেছে, ভোট প্রদানের হার খুবই কম। গত বছরের ৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত রংপুর-৩ আসনে ভোট পড়ে ২১ দশমিক ৩১ শতাংশ। অথচ ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর ইভিএমে অনুষ্ঠিত এই আসনে ভোট পড়েছিলো ৫২ দশমিক ৩১ শতাংশ। গত ১৩ জানুয়ারি চট্টগ্রাম-৮ আসনে ভোট পড়ে ২২ দশমিক ৯৪ শতাংশ।

একইভাবে গত ১৩ জানুয়ারি চাঁদপুরের হাইমচর পৌরসভার নির্বাচনে ভোট পড়ে ৪০ শতাংশ। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ছয়টি আসনে ইভিএমে ভোটগ্রহণ হয়। ব্যালটের সনাতন পদ্ধতিতে ভোট পড়েছে ৮০ শতাংশ। আর ইভিএমের ছয় আসনে ভোটের হার ৫১ দশমিক ৪১ শতাংশ।

ইভিএমে ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার ঘণ্টাখানেকের মধ্যে ফল প্রকাশের কথা থাকলেও এবার ১১ঘন্টা সময় নিয়েছে কমিশন। যদিও এই ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে ঢাকা উত্তর সিটি রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাসেম বলেছেন, যান্ত্রিক ত্রুটিই এই দেরির কারণ। ট্যাবের মাধ্যমে আমরা যে ফলাফল নিয়েছি, ওইখানে নেটওয়ার্কে বা আমাদের কিছু টেকনিক্যাল ত্রুটির কারণে ফলাফল দিতে বিলম্ব হয়েছে।

দক্ষিণ সিটির রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুল বাতেন শনিবার রাতে ফল ঘোষণার সময়ই বলেছিলেন, প্রিজাইডিং কর্মকর্তাদের ভুেেলর কারণে ফল প্রকাশে দেরি হয়। দেরির কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, প্রিজাইডিং অফিসাররা ট্যাবে রেজাল্ট পাঠাতে ভুল করেছেন, অনেকে ম্যানুয়ালি পাঠিয়েছেন। যারা ভুল করেছেন, তাদের আলাদা আলাদাভাবে কল করে আমরা ম্যানুয়ালি রেজাল্ট নিয়েছি।

রাত পৌন ১২ টায় দক্ষিণের ফল প্রকাশের তিন ঘণ্টার বেশি সময় পর উত্তরের ১৩১৮ কেন্দ্রের ফল ঘোষণা হয়। অর্থাৎ বিকাল ৪টায় ভোট শেষের ১১ ঘণ্টা পর ইভিএমের এই নির্বাচনের ফল আসে, কাগুজে ব্যালটের ক্ষেত্রেও একই সময় লেগেছিল এর আগে।

ইভিএমে ৩ হাজার না ভোট : ইভিএমেও এবারে ‘না ভোট’ পড়েছে ৩ হাজার ৯২টি। এরা ভোট দিতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। উত্তর সিটিতে মোট ভোট পড়েছে ৭ লাখ ৬২ হাজার ১৮৮টি। এরমধ্যে বাতিলকৃত বা অবৈধ ভোট হচ্ছে ১৫৩০টি। ঢাকা দক্ষিণে সিটিতে মোট ভোট পড়েছে ৭ লাখ ১৩ হাজার ৫০টি। এর মধ্যে বাতিল ভোট হচ্ছে ১৫৬২টি। ৩ হাজার ৯২ জন ভোটার ইভিএমের ব্যালট ইউনিটে ‘লাল’ বাটন টিপে ভোট সম্পন্ন করেছে।

ভোটার উপস্থিতি কম হওয়ার কারণ সম্পর্কে সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার বলেন, নিকট-অতীতে ভোট ছাড়া জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার ঘটনা, বর্তমান কমিশনের ওপর ভোটারদের আস্থাহীনতা, প্রচারে বড় দুই রাজনৈতিক দলের কেন্দ্র দখলের পাল্টাপাল্টি হুমকি ইত্যাদি নির্বাচনে কেন্দ্রবিমুখ হওয়ার অন্যতম কারণ।

তিনি বলেন, ভোটাররা মনে করছেন, তাদের ভোটে কোনো পরিবর্তন ঘটে না; যা হওয়ার তাই হবে। এসব কারণে মানুষ ভোটকেন্দ্রে যেতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা মনে করেন, কেন্দ্রে ভোটার আনার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের নয়। তারা সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ ভোটের পরিবেশ সৃষ্টি করার তাদের। ভোটারদের কেন্দ্রে আনার প্রধান কাজ প্রধান প্রধান রাজনৈতিক দলের।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের বাঙ্গলার বীরকন্যা প্রীতিলতা ওয়েদ্দাদার চরিত্রে রুপালি পর্দায় দেখা দেবেন পরীমনি। ছবিটির প্রডাকশন শুরু... আরও পড়ুন

প্রীতিলতা ওয়েদ্দাদার

ইকামা বা ভিসা আছে কিন্তু ছুটিতে দেশে এসেছেন, তাদের সবাই সৌদি আরব যেতে পারবেন বলে... আরও পড়ুন

ইকামা বা ভিসা আছে

দক্ষিণ কোরিয়ার এক কর্মকর্তাকে গুলি করে খুন করে সেই মৃতদেহ পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন... আরও পড়ুন

ব্যক্তির মৃতদেহ জ্বালিয়ে

করোনা ভাইরাসের মতো বৈশ্বয়িক মহামারীর সময়ও জনগণের পাশে না থেকে বিএনপি ও জামায়াত চোরাগলি দিয়ে... আরও পড়ুন

ষড়যন্ত্রের অলিগলি খুঁজে

সপ্তাহ পেরুতেই ভোজ্য তেল, চাল ও চিনির বাজারে দাম বেড়েছে।পামওয়েল ও খোলা সোয়াবিন তেলের দাম... আরও পড়ুন

তেল, চাল ও চিনির বাজারে দাম বেড়েছে

আজ শুক্রবার রাজধানীর কয়েকটি এলাকায় তিন ঘন্টার জন্য গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। জরুরি রক্ষণাবেক্ষণের জন্য... আরও পড়ুন

জরুরি রক্ষণাবেক্ষণের

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু নিয়ে উদ্ভট একটি খবর পাওয়া গেছে।তিনি নাকি যখনই যুক্তরাষ্ট্রে সফরে করেন,... আরও পড়ুন

  স্যুটকেস ভর্তি ময়লা

বিশ্বের নামকরা টেক জায়েন্টদের সঙ্গে সম্পর্কটা দারুণ মাইক্রোসফট সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের।অ্যাপলের স্টিভ জবস থেকে টেসলা... আরও পড়ুন

আর্ন্তজাতিক সমালোচনা ও চাপের মুখেই চীনে উইঘুর মুসলিমদের নিপীড়নে শিনজিয়াংয়ে বন্দীশিবিরের খোঁজ পাওয়া গেছে। উইঘুরদের... আরও পড়ুন

শিনজিয়াংয়ে বন্দীশিবিরের খোঁজ

এখন থেকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো গ্রাহকদের কাছ থেকে ক্রেডিট কার্ড বাবদ কুড়ি শতাংশের বেশি সুদ আদায়... আরও পড়ুন

ক্রেডিট কার্ড বাবদ কুড়ি শতাংশের

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।