আওয়ামী লীগ এমপিদের প্রচারে চায়,সিইসির ‘না’

রিডার::ঢাকা

শনিবার, ১১ জানুয়ারী, ২০২০ ০৯:৪৯:২৪ অপরাহ্ন
  •  
  •  
  •  
  •  
এই দাবি এবং বিধির

আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনের প্রচারণায় এমপিদের সুযোগ চেয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এই দাবি এবং বিধির ব্যাখ্যা জানতে শনিবার নির্বাচন ভবনে আওয়ামী লীগ প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যর কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করেছে।

দাবির পক্ষে যুক্তি দিয়ে দলটি বলছে, আচরণ বিধি অনুযায়ী সরকারি সুবিধাভোগী অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হিসেবে সংসদ সদস্য প্রচারে অংশ নিতে পারবেন না। অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি-এমপিরা কিন্তু সুবিধাভোগী না। সুবিধাভোগী বলতে বোঝায় অফিস অফ প্রফট।

এমপিরা তা পায়না। তাই আচরণ বিধির যে ব্যাখ্যা, এই ব্যাখ্যার মধ্যে স্ববিরোধীতা আছে। বৈঠক ফলপ্রসু হলেও এমপিদের প্রচারণায় যাওয়ার সুযোগ নাকচ করে দিয়ে সিইসি বলেছেন, আইনানুযায়ী সিটি নির্বাচনের প্রচারণায় এমপিদের অংশ নেয়ার সুযোগ নেই।

‘সিটি করপোরেশন নির্বাচন আচরণ বিধিমালার ২২ ধারায় বলা আছে, ‘সরকারি সুবিধাভোগী অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী, সংসদের স্পিকার, মন্ত্রী, চিফ হুইপ, ডেপুটি স্পিকার, বিরোধী দলীয় নেতা, সংসদ উপনেতা, বিরোধী দলীয় উপনেতা, প্রতিমন্ত্রী, হুইপ, উপমন্ত্রী বা তাদের সমপদমর্যাদার কোনো ব্যক্তি, সংসদ সদস্য এবং সিটি করপোরেশনের মেয়র বা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী নির্বাচন পূর্ব সময়ে নির্বাচনী প্রচারণায় বা নির্বাচনী কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

তর্বে শর্ত থাকে যে, উক্তরুপ ব্যক্তি সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকার ভোটার হলে তিনি কেবল তার ভোট প্রদানের জন্য ভোটকেন্দ্রে যেতে পারবেন।’ ২০০৪ সালে আচরণবিধিতে এই ধারা সংযোজন করা হয়েছিলো। আচরণ বিধির উপরোক্ত ধারায় শুধু এমপিদের প্রচারে বাধা নিয়ে আপত্তি আওয়ামী লীগের।

এ নিয়ে বেলা সাড়ে ১১টায় আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমদের নেতৃত্বে দলের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, উত্তর সিটির মিডিয়া সেলের সদস্য জয়দেব নন্দী, মাহমুদ সালাহউদ্দীন চৌধুরী কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে সিইসির নেতৃত্বে ইসির পক্ষে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, বেগম কবিতা খানম, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেছুর রহমার, উত্তর সিটির রিটার্নিং কর্মকর্তা মো:আবুল কাসেমসহ উধ্বর্তন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ এমপি বলেন, পথসভা, নির্বাচনী প্রচারে সংসদ সদস্যরা যাবেন না। এটা তারা মেনে নিয়েছেন। কিন্তু আমরা নির্বাচনী অফিস, যেমন আমাকে শেখ সেলিম, হানিফ, মির্জা আজম সাহেবকে নির্বাচনী সমন্বয়কের দায়িত্ব দিয়েছে। আমরা অফিসে বসে পরিকল্পনা করতে পারি। এতে কোনো বাধা নাই। কর্মীদের দিক নির্দেশনা দিতে পারবেন। এতে কোনো বাধা নেই। তিনি বলেন, এমপিরা নির্বাচনী প্রচার ছাড়া সব করতে পারবেন।

উত্তর সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সমন্বয়ক তোফায়েল আহমেদ বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধিতে কিছু স্ববিরোধী বিষয় আছে। সংসদ সদস্যরা সরকারি সুবিধাভূগী নন। আবার গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির কথা বলা হয়েছে, বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদ সাবেক প্রধানমন্ত্রী, খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায় তারা মন্ত্রী ছিলেন। তারাও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। নির্বাচন কমিশনও তাঁদের এই ব্যাখ্যায় একমত হয়েছে।

কিন্তু তারা বলেছে, এখন কিছু করার নেই। এখন কিছু করা হলে সেটা মানুষের চোখে সরকারের জন্য ভাল হবে না।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ইসি আচরণবিধি পরিবর্তন করার উদ্যোগ নিয়েছিল। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। তারাও এখন এটা পরিবর্তন করতে বলেননি। কিন্তু নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, সংসদ সদস্যরা ঘরে, কার্যালয়ে বসেও নির্বাচন নিয়ে কোনো কথা বলতে পারবেন না। বৈঠকে মাহবুব তালুকদার ছাড়া সবাই একমত হয়েছেন, এটা বাস্তবসম্মত নয়। তারা ঘরোয়াভাবে কার্যালয়ে, মহল্লায় গিয়ে ঘরের মধ্যে বৈঠক করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে বাধা নেই। একজন দ্বিতম পোষণ করতেই পারেন।

ইসির সঙ্গে খুব ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে উল্লেখ করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, মুজিববর্ষে আগামী এক বছর কর্মসূচিতে এমপিরা থাকবেন। ইসি বলেছে, সংসদ সদস্যরা যেন এসব কর্মসূচিতে ভোট না চান। কিন্তু এমপি ছাড়া যারা থাকবেন তারা ভোট চাইতে পারবেন।

এই আলোচনা করে আমরা ক্লিয়ার হলাম। আমরা এমপিরা ভোট চাইবো না। কিন্তু মাহবুব তালুকদার যে বলেছেন-আমরা ঘরে বসেও কোনো কিছুই করতে পারবো না, এটা ঠিক না।

বৈঠক শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেন, নির্বাচন সংক্রান্ত কোনো সমন্বয় সংসদ সদস্যরা করতে পারবেন না। নির্বাচন সংক্রান্ত কোনো কাজ তারা ঘরোয়া বা বাইরে হোক, করতে পারবেন না। এটাই আাচরণবিধিতে বলা হয়েছে। এটা তাদের বুঝিয়ে বলা হয়েছে। অবশ্য সিইসি এটাও বলেছেন, তবে ঘরে বসে কী করবেন, সেটা আমি কী করে বলব?

সংসদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ ও আমির হোসেন আমুকে নির্বাচনের সমন্বয়ক করা বৈধ হয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, এটা তিনি বলতে পারছেন না। তার কাছে আনুষ্ঠানিক এ ধরনের কিছু আসেনি। কারা এই কমিটিতে আছে, তা তারা জানেন না।

সংসদ সদস্যরা সমন্বয়ক হিসেবে নির্বাচনের ক্যাম্পে বসে সমন্বয় করতে পারেন কিনা-এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়, তারা পারেন না। আমি জানি না কাদের কীভাবে কী কমিটিতে রেখেছে। আমরা অফিসিয়ালি এখনো পাইনি। এরকম পেয়ে থাকলে তাদের নিষেধ করবো যে সমন্বয়কারী হিসেবে তারা দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না।’

সিইসি বলেন, সংসদ সদস্যরা সবকিছুই করতে পারবেন। কেবল নির্বাচনের ব্যাপারে তাদের কোনো সম্পৃক্ততা, কোনো প্রচারণা এবং নির্বাচনী কার্যক্রম করতে পারবেন না। নির্বাচনের বাইরে যে কাজ, সেখান থেকে তাঁদের নিষ্ক্রিয় করার সুযোগ নেই।

আচরণবিধি অনুযায়ী সরকারি সুবিধাভূগী গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা নির্বাচনের ব্যাপারে কোনো প্রার্থীর পক্ষে বিপক্ষে কোনো কথা বলতে পারবনে না। নির্বাচনী এলাকায় তাঁদের যে রাজনৈতিক কর্মসূচি আছে সেগুলোতে অংশ নিতে পারবেন।

প্রার্থীর সঙ্গে এমপিরা থাকতে পারবেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে কে এম নূরুল হুদা বলেন, ‘প্রার্থীর সঙ্গে এমপিরা থাকতে পারবেন কি না, আইনে এমন ডিটেইলস বাধা-নিষেধ নেই। এখন তারা পার্টির লোক হিসেবে একইসঙ্গে যদি কোনো এলাকায় রাজনৈতিক কর্মসূচিতে থেকে থাকে, সেখানে যেতে পারবেন। রাজনৈতিক কথা হতে পারে, যেমন মুজিববর্ষের কর্মসূচি থাকতে পারে।

সেখানে তো যেকোনো লোক যেতে পারে। শুধুমাত্র সেখানে নির্বাচনের কোনো প্রচার হবে না। সিইসি বলেন, আওয়ামী লীগের এই প্রতিনিধি দলটি কোনো প্রার্থী বা দলের বিষয়ে আলোচনা করতে আসেনি। তারা নির্বাচনী আচরণবিধির বিষয়ে ব্যাখ্যা জানতে এসেছিলেন।

এই মুহুর্তে পড়া হচ্ছে

গুজবে কান দিয়ে রংপুরের যে যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে সেই শহিদুন্নবী জুয়েল আদতে ধর্মভিরু... আরও পড়ুন

আদতে ধর্মভিরু মুসলিম।

নভেম্বরের শুরুতেই নয়া প্রেসিডেন্ট পেতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ডাকযোগে আগাম ভোট শুরু হয়েছে চলতি মাসে। এরই... আরও পড়ুন

ডাকযোগে আগাম ভোট

হাজী সেলিমপুত্র ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বহিস্কৃত কাউন্সিলর ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ... আরও পড়ুন

মোহাম্মদ জাহিদের তিন

টানা দশ ঘণ্টা রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে বসে আলোচনার পর আর্মেনিয়া ও আজারবাইজানের মধ্যে সাময়িক যুদ্ধবিরতির... আরও পড়ুন

যুদ্ধবিরতির বিষয়ে

হঠাৎ করে ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায় সামাজিক মাধ্যমগুলোতে উদ্বিগ্ন আমজনতা। চলছে আন্দোলনও। দাবি উঠছে সর্বোচ্চ শাস্তি... আরও পড়ুন

ধর্ষণ বেড়ে যাওয়ায়

প্রায় চার মাস বাদে পদ্মা সেতুর ৩২তম স্প্যান স্থাপনের মধ্য দিয়ে প্রায় ৫ কিলোমিটার দৃশ্যমান... আরও পড়ুন

উত্তর কোরিয়ার ক্ষমতাসীন ওয়ার্কাস পার্টির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে একটি নতুন আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন করেছে... আরও পড়ুন

ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) উন্মোচন

সৌদি আরবের দক্ষিণাঞ্চলে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীদের পাঠানো একটি বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস করেছে সৌদি এয়ার... আরও পড়ুন

বিস্ফোরক ভর্তি ড্রোন ধ্বংস

করোনা আক্রান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আসন্ন সাধারণ নির্বাচনের আগে দেশটির ঐতিহ্য অনুযায়ী নির্বাচনী বিতর্ক... আরও পড়ুন

নির্বাচনী বিতর্ক

পাঁচ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের... আরও পড়ুন

ধর্ষণের অভিযোগে চার শিশু

  সাম্প্রতিক মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Recommended for you

ব্যবহার না করে ব্যালট পেপারে ভোটগ্রহনের

ঢাকার দুই সিটিতে ব্যালটে ভোট চায় বিএনপি

আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার না করে ব্যালট পেপারে ভোটগ্রহনের লিখিত দাবি জানিয়েছে বিএনপি। আজ মঙ্গলবার বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আমগীর... আরও পড়ুন

কমিশনার (সিইসি) কেএম

কর্মকর্তাদের সব দায়িত্ব নেয়ার প্রস্তুতি নিতে বললেন সিইসি

আগামীতে সব ধরণের নির্বাচনের দায়িত্ব নেয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের কর্মকর্তাদের প্রস্তুতি নিতে বলেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা। আগামীকাল শুক্রবার সকালে আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে বাংলাদেশ ইলেকশন কমিশন অফিসার্স... আরও পড়ুন

শতভাগ ভোট পড়া স্বাভাবিক নয়

স্বাভাবিক ঘটনা বলে আমার মনে হয় না। তবে এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের করণীয় কিছু নেই। রবিবার রাজধানীর এক অনুষ্ঠানে একাদশ জাতীয় নির্বাচনে দুই শতাধিক কেন্দ্রে শতভাগ ভোট পড়ার বিষয়ে সাংবাদিকদের... আরও পড়ুন

আওয়ামীলীগের মুখ লাগানো:এইচ টি ইমাম

আসন্ন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি নির্বাচনে ‘মহাসুবিধায়’ আছে বিএনপি। অন্যদিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মুখে কুলুপ লাগানো। আওয়ামী লীগের জাতীয় নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ার‌ম্যান এইচটি ইমাম নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে বৈঠক শেষে আজ বুধবার  নির্বাচন ভবনে এমন মন্তব্য করেন। তিনি... আরও পড়ুন